রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) আবাসিক হলে শিক্ষার্থী নির্যাতন, হলে সিট বাণিজ্য ও দখলদারিত্ব বন্ধের দাবিতে প্রতীকী অনশন করেছেন দুই শিক্ষক। রোববার সকাল ১০টার দিকে তারা দু'জন বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ জোহা চত্বরে অনশনে বসেন। দুপুর ২টা পর্যন্ত তারা অনশন পালন করেন। তাদের দাবি মানা না হলে আমরণ অনশনের ডাকও দিয়েছেন এক শিক্ষক।

অনশনকারী শিক্ষকরা হলেন- পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক সালেহ হাসান নকীব ও অর্থনীতি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. ফরিদ উদ্দীন খান। ড. ফরিদ সকাল ১০টা থেকে ২টা পর্যন্ত অনশন করেন আর অধ্যাপক সালেহ হাসান নকীব তার সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে প্রায় একঘণ্টা সেখানে অবস্থান করেন।

এর আগেও একই দাবিতে এই শিক্ষকরা মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন।

এ বিষয়ে ড. ফরিদ উদ্দীন খান বলেন, ‘হলগুলোতে রাজনৈতিক দখলদারিত্ব সীমার বাইরে চলে গেছে। এখানে প্রতিনিয়ত শিক্ষার্থী নির্যাতন হচ্ছে, আবাসিক ছাত্রের বের করে দেওয়া হচ্ছে। সিট বাণিজ্য চলছে। শিক্ষার্থীরা তাদের অধিকার বঞ্চিত হচ্ছে। কিন্তু এসব বন্ধে কোনো উদ্যোগ চোখে পড়ছে না। এগুলো বন্ধও হচ্ছে না। আমরা এসব বন্ধের দাবিতে আজ প্রতীকী অনশন করছি। এগুলো বন্ধ না হলে আমি আমরণ অনশন শুরু করবো। হয় আমি বেঁচে থাকবো, না হয় শিক্ষার্থী নির্যাতন থাকবে ক্যাম্পাসে।’

তিনি বলেন, ‘আমি বেঁচে থাকা পর্যন্ত এই দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে আন্দোলন করে যাবো।’