রাজধানীর কারওয়ান বাজারে একটি যাত্রীবাহী বাস থেকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী পারিসা আক্তারের মোবাইল ফোন ছিনতাই হয়। ঘটনার ১১ দিন পর তার ছিনতাই হওয়া মোবাইল ফোন উদ্ধার করেছে ডিএমপির তেজগাঁও থানা পুলিশ। এ সময় ছিনতাইকারীকেও আটক করা হয়েছে। 

মঙ্গলবার রাতে তেজগাঁও থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শাহ আলম সমকালকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, গত ২১ জুলাই সন্ধ্যায় রাজধানীর কারওয়ান বাজার থেকে ছিনতাই হওয়া জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী পারিসা আক্তারের মোবাইলফোন উদ্ধার ও আসামিকে আটক করা হয়েছে। এ বিষয়ে বুধবার সকালে তেজগাঁও থানায় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত জানানো হবে।

এদিকে ফোন উদ্ধার ও ছিনতাইকারী আটকের খবরে খুশি পারিসা। 

সমকালকে তিনি বলেন, ফোন পাওয়াটা আমার কাছে জরুরি বিষয় ছিল না। আমি খুব কষ্টে আমার গবেষণাপত্র জমা দিয়েছি। আমি চাই এই চুরি ছিনতাইয়ের স্থায়ী সমাধান হোক। আমার মতো যেন আর কেউ এমন ঘটনার শিকার না হয় আমি সেই নিশ্চয়তা চাই। বাংলাদেশ থেকে চুরি ছিনতাই শব্দ মুছে যাক।

২১ জুলাই মিরপুর থেকে তানজিল পরিবহনে সদরঘাটে যাচ্ছিলেন পারিসা আক্তার। পথে কারওয়ান বাজার যানজটের মধ্যে ছিনতাইয়ের শিকার হন তিনি। দ্রুত বাস থেকে নেমে ছিনতাইকারীকে ধরার চেষ্টা করেন। এ সময় পাশেই আরেকজনের মোবাইল ছিনতাইকারীকে ধরে ফেলেন তিনি। পরে ছিনতাইকারী ও তার সহযোগীকে পুলিশের হাতে তুলে দেন পারিসা আক্তার।