ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

যৌন হয়রানির অভিযোগ 

ঢাবি শিক্ষক নাদিরের বিচার চেয়ে ক্লাস বর্জন শিক্ষার্থীদের  

ঢাবি শিক্ষক নাদিরের বিচার চেয়ে ক্লাস বর্জন শিক্ষার্থীদের  

অধ্যাপক নাদির জুনাইদ। ফাইল ছবি

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক 

প্রকাশ: ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ২২:৩২

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক নাদির জুনাইদের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ তদন্ত করে বিচার দাবি করেছেন বিভাগের শিক্ষার্থীরা। একই সঙ্গে তদন্ত চলাকালে শিক্ষকের সাময়িক অব্যাহতি চেয়ে ক্লাস বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন তারা। দাবি আদায়ে তারা ক্যাম্পাসে পোস্টারও টানিয়েছেন।   

রোববার সকাল ১০টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত বিভাগের বারান্দায় বিক্ষোভ করেন সব ব্যাচের শিক্ষার্থী। পরে তারা মিছিল নিয়ে উপাচার্যের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেন এবং বেলা ২টায় অপরাজেয় বাংলায় মানববন্ধন করেন।

শিক্ষার্থীদের দাবির মধ্যে রয়েছে শিক্ষকের বিরুদ্ধে দ্রুত তদন্ত কমিটি গঠন, অভিযোগ নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত একাডেমিক কার্যক্রম থেকে অব্যাহতি ও শাস্তির আওতায় আনা।

গত বুধবার ১২ ব্যাচের শিক্ষার্থীরা অধ্যাপক নাদিরের বিরুদ্ধে স্নাতকোত্তরের পরীক্ষায় নম্বর কমিয়ে দিয়ে ফল খারাপ করার অভিযোগ তোলেন। পরে শনিবার তাঁর বিরুদ্ধে এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানি ও মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ আসে।  

অভিযুক্ত অধ্যাপকের দাবি, বিভাগের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পাওয়ার আগে ব্যক্তিগত আক্রমণের শিকার হচ্ছেন তিনি।   

মানববন্ধনে নওরীন সুলতানা তমা নামে এক শিক্ষার্থী বলেন, আমরা শিক্ষক নাদিরের সর্বোচ্চ শাস্তি চাই। যাতে অন্য শিক্ষকরা উৎসাহিত না হন। 

আবু সুফিয়ান অর্ণব বলেন, তাঁর হাতে হয়রানির শিকার হয়েছে অসংখ্য শিক্ষার্থী। 

আদনান তূর্য বলেন, প্রথম বর্ষে গেস্টরুমে নির্যাতনের বিপক্ষে আমরা দাঁড়িয়েছিলাম কিন্তু তিনি আমাদের দাঁড়াতে দেননি। আজরা হুমায়রা বলেন, বিচার না হওয়া পর্যন্ত ক্লাস-পরীক্ষায় ফিরব না।

বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবুল মনসুর আহাম্মদ বলেন, ‘শিক্ষার্থীরা আমাকে স্মারকলিপি দিয়েছে। উপাচার্য অভিযোগ তদন্ত করে বিচারের আশ্বাস দিয়েছেন।’ 

উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল বলেন, অভিযোগের বিষয়ে সিন্ডিকেট সভায় সিদ্ধান্ত হবে। এর আগে একটি সভা করে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুযায়ী যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফেরার আহ্বান জানান।  

আরও পড়ুন

×