চলতি বছরের জন্য ঘোষিত হজ প্যাকেজের মূল্য মন্ত্রণালয় পর্যায় থেকে কমানোর কোনো সুযোগ নেই বলে জানিয়েছেন ধর্ম মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (হজ) মতিউল ইসলাম। তিনি আরও জানান, মন্ত্রণালয় ঘোষিত তারিখ অনুযায়ী হজ নিবন্ধন কার্যক্রম আজই শেষ হবে।

আজ বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব তথ্য জানান।

হজ প্যাকেজে অনড় থাকার যুক্তি দেখিয়ে মতিউল ইসলাম বলেন, হজ ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত নির্বাহী কমিটিতে ৩১টি মন্ত্রণালয়ের সচিব পদমর্যাদার কর্মকর্তারা আছেন। আমাদের প্রতিমন্ত্রীও আছেন। আমরা যে তথ্য-উপাত্ত উপস্থাপন করেছি সেটি বিচার-বিশ্লেষণ করেই কমিটিতে হজ প্যাকেজ অনুমদিত হয়েছে।

তিনি বলেন, হজ প্যাকেজ সংশোধনের বিষয়টি আমাদের পর্যায়ে নিষ্পত্তিযোগ্য নয়। এ বিষয়ে আমাদের কোনো আলোচনাও নেই।

হজ নিবন্ধন কার্যক্রম আজই শেষ হবে জানিয়ে মতিউল ইসলাম বলেন, আজকে যত রাত হোক, হজের নিবন্ধন কার্যক্রম চলছে, যারা আজকে টাকা জমা দেবেন, রাত হলেও ব্যাংকে গেলে টাকা জমা দিতে পারবেন।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আজকের সময় শেষ হওয়ার পর ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এ বছর হজ পালনের জন্য সরকারঘোষিত প্যাকেজের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৬ লাখ ৮৩ হাজার ১৫ টাকা। আর বেসরকারিভাবে হজ প্যাকেজের খরচ ধরা হয়েছে ৬ লাখ ৭২ হাজার ৬১৮ টাকা, যা গত বছরের সর্বনিম্ন প্যাকেজের তুলনায় প্রায় দুই লাখ টাকা বেশি।

ধর্ম মন্ত্রণালয় হজ প্যাকেজ ঘোষণার পরপরই দেশজুড়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার সৃষ্টি হয়। হজ প্যাকেজের মূল্য কমাতে কেউ কেউ আইনি নোটিশ ও হাইকোর্টে রিট পর্যন্ত দায়ের করেছেন। এদিকে গতকাল বুধবার ধর্ম মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে হজ প্যাকেজ ৪৮ হাজার টাকা কমানোর সুপারিশ করা হয়।

চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ২৭ জুন (৯ জিলহজ) পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হতে পারে। এবার বাংলাদেশ থেকে ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন হজ পালনের সুযোগ পাবেন। এর মধ্যে সরকারিভাবে ১৫ হাজার এবং ১ লাখ ১২ হাজার ১৯৮ জন বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ পালনের সুযোগ পাবেন।