ঢাকা শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

বামবা-চ্যানেল আই ব্যান্ড মিউজিক ফেস্ট

ব্যান্ড তারকাদের সুরের জোয়ারে তারুণ্যের উচ্ছ্বাস

ব্যান্ড তারকাদের সুরের জোয়ারে তারুণ্যের উচ্ছ্বাস

সমকাল প্রতিবেদক

প্রকাশ: ০২ ডিসেম্বর ২০২২ | ১০:৪৭ | আপডেট: ০৩ ডিসেম্বর ২০২২ | ০২:৫০

করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আসায় আবারও গানের উৎসবে মাতল রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়াম। সুরের সাগরে হারিয়ে যেতে অনুষ্ঠানে যোগ দেন দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা হাজারো শ্রোতা। তাঁদের অধিকাংশই ছিলেন তরুণ। উচ্ছ্বাস আর উন্মাদনায় মিলেমিশে একাকার হয়ে ভিন্ন এক সাজে সেজেছিল স্টেডিয়াম প্রাঙ্গণ। এক মঞ্চে দেশসেরা ১৬টি ব্যান্ডের অংশগ্রহণে যেন ব্যান্ডসংগীতের জয়জয়কার ছিল পুরো অনুষ্ঠান। মনের কোণে জমে থাকা ক্লান্তি তাঁরা মুছে দিয়ে গেলেন সুরের মূর্ছনায়। শুক্রবার এ দৃশ্য ছিল বামবা-চ্যানেল আই ব্যান্ড মিউজিক ফেস্ট-২০২২-এ।

মন মাতানো এ কনসার্টে অংশ নেয় নগর বাউল, মাইলস, ওয়ারফেইজ, সোলস, রেনেসাঁ, ফিডব্যাক, অর্থহীন, মাকসুদ ও ঢাকা, অবসকিউর, দলছুট, আর্টসেল, শিরোনামহীন, ভাইকিংস, ক্রিপটিক, ফেইট, পেন্টাগন ও পাওয়ারসার্জ। এর মধ্যে পাওয়ারসার্জ পরিবেশন করে সুলতানা বিবিয়ানাসহ কয়েকটি গান। পেন্টাগন পরিবেশন করে তোমায়, বৃষ্টি, এই রাতে শীর্ষক গানগুলো।

শিরোনামহীন পারফর্ম করে এই অবেলায়, বন্ধ জানালাসহ আরও কয়েকটি গান। এর পর মঞ্চে গান নিয়ে আসে মাকসুদ ও ঢাকা। বাংলাদেশ'সহ নিজেদের বেশ কয়েকটি শ্রোতাপ্রিয় গান পরিবেশন করেন তাঁরা। রেনেসাঁ গেয়ে শোনায়- 'ও নদীরে যাস কোথায় রে, ভালো লাগে জোছনা রাতে, আচ্ছা কেন মানুষগুলো এমন হয়ে যায়সহ আরও কয়েকটি গান। দলছুট পরিবেশন করে- তীরহারা এই ঢেউয়ের সাগর, বাজিসহ নিজেদের জনপ্রিয় বেশ কয়েকটি গান।
কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী প্রয়াত আইয়ুব বাচ্চু এ দেশের ব্যান্ডসংগীতকে বিশ্বের দরবারে পৌঁছে দেওয়ার ক্ষেত্রে ছিলেন অগ্রগামীদের একজন। তাঁর সেই ভাবনার সূত্রেই ৯ বছর আগে কিংবদন্তি এই মিউজিশিয়ান প্রস্তাবনা রাখেন চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগরের কাছে। দাবি করেন, প্রতিবছর ১ ডিসেম্বর দেশের সেরা ব্যান্ডগুলোর উপস্থিতিতে চ্যানেল আই প্রাঙ্গণে যেন কনসার্ট হয় এবং দিনটিকে যেন 'ব্যান্ড মিউজিক ডে' হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। এর পর থেকেই চ্যানেল আই প্রাঙ্গণে ১ ডিসেম্বর পালিত হচ্ছে ব্যান্ড মিউজিক ডে এবং কনসার্ট। বাংলা ব্যান্ড মিউজিক নিয়ে আইয়ুব বাচ্চুর স্বপ্ন এবং চ্যানেল আইয়ের সেই উদ্যোগের সঙ্গে এবার যুক্ত হয়েছে বাংলাদেশ মিউজিক্যাল ব্যান্ড অ্যাসোসিয়েশন (বামবা)।

 দুপুর ১২টায় অনুষ্ঠান প্রাঙ্গণের প্রবেশদ্বার উন্মুক্ত করার পর দুপুর ২টার পর শুরু হয় মূল আসর। মধ্যরাত পর্যন্ত চলে এই কনসার্ট। বামবা সভাপতি ও মাইলসের ব্যান্ডতারকা হামিন আহমেদ বলেন, এখন থেকে প্রতিবছর এই কনসার্ট আয়োজন করা হবে। ১ ডিসেম্বরকে আমরা ব্যান্ড দিবস হিসেবে এবং কনসার্টটি প্রতিবছরের প্রথম শুক্রবার পালন করার ইচ্ছা আছে। আগামী বছর থেকে এ আয়োজন হবে দুই দিনব্যাপী।
কনসার্ট নিয়ে আরও কথা বলেন, বামবার ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ওয়ারফেজের এসএম আলম টিপু, আয়োজনের প্রকল্প পরিচালক ইজাজ খান স্বপন, শিরোনামহীনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও গীতিকার-সুরকার জিয়াউর রহমান জিয়া প্রমুখ।

আরও পড়ুন

×