২০১৪ এর সেরা চলচ্চিত্র 'নেকাব্বরের মহাপ্রয়াণ'

প্রকাশ: ১৮ এপ্রিল ২০১৬      

অনলাইন ডেস্ক

গল্প ‘চুরির’ অভিযোগে ‘বৃহন্নলা’র তিনটি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার বাতিলের পর ওই তিন ক্ষেত্রে নতুন করে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেছে সরকার।
 
সোমবার ওই তিন পুরস্কার বাতিলের কথা জানিয়ে এক তথ্যবিবরণীতে নতুন বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়।
 
এতে জানানো হয়, ২০১৪ সালের সেরা চলচ্চিত্রের জাতীয় পুরস্কার পাচ্ছে মাসুদ পথিক প্রযোজিত ‘নেকাব্বরের মহাপ্রয়াণ’।
 
এছাড়া মেঘমল্লার চলচ্চিত্রের জন্য আখতারুজ্জামান ইলিয়াস সেরা কাহিনিকার এবং একই সিনেমার জন্য জাহিদুর রহিম অঞ্জন সেরা সংলাপ রচয়িতার জাতীয় পুরস্কার পাচ্ছেন বলেও জানানো হয় তথ্য বিবরণীতে।
 
২০১৪ সালের জাতীয় পুরস্কার পাওয়া 'বৃহন্নলা'র নির্মাতার বিরুদ্ধে  নির্মাতার বিরুদ্ধে ভারতীয় সাহিত্যিক সৈয়দ মুস্তাফা সিরাজের ছোট গল্প ‘গাছটি বলেছিল’ থেকে নকলের অভিযোগ ওঠে।
 
সৈয়দ মুস্তাফা সিরাজের ছোট ছেলে সাংবাদিক অমিতাভ সিরাজের ওই অভিযোগের ভিত্তিতে ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে টাইমস অব ইন্ডিয়া একটি প্রতিবেদনও প্রকাশ করে।
 
পরে এ ঘটনায় তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুকে চিঠি দেন পশ্চিমবঙ্গের কথাসাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় ও দেবেশ রায়।
 
এই পরিস্থিতিতে বিষয়টি খতিয়ে দেখতে বাংলাদেশ বেতারের মহাপরিচালক এ কে এম নেছার উদ্দিন ভূইয়াকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি করে তথ্য মন্ত্রণালয়।
 
সর্বশেষ  জানা যায়, জাতীয় পুরস্কার পাওয়া 'বৃহন্নলা' সিনেমার পুরস্কার বাতিলের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। ২০১৪ সালে তিনটি শাখায় জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া 'বৃহন্নলা'র গল্প চুরির অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।
 
তথ্য সচিব মর্তুজা আহমেদ রোববার সাংবাদিকদের বলেন, সরকারি অনুদানের চলচ্চিত্রের ক্ষেত্রে একটি শর্ত হল গল্পটি মৌলিক হতে হবে। ফলে যখন অভিযোগ পাওয়া গেল, যে এই গল্পটি মৌলিক নয় এবং অন্য একজনের গল্প থেকে নেয়া এবং সেখানে কোনোরকম স্বীকৃতি দেয়া হয়নি, তখন তথ্য মন্ত্রণালয় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে।

তিনি বলেন, তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার পর পুরস্কার বাতিল হয়েছে।
 
উল্লেখ্য, সরকারি অনুদানের চলচ্চিত্র বৃহন্নলা মুক্তি পায় ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বর মাসে। ওই বছরই সেরা চলচ্চিত্র, সেরা কাহিনীকার এবং সেরা সংলাপ রচয়িতা শাখায় জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করে বৃহন্নলা।