দাম্পত্য বিচ্ছেদের পরও বন্ধুত্ব বজায় রেখেছেন যে তারকারা

প্রকাশ: ২১ অক্টোবর ২০১৯     আপডেট: ২১ অক্টোবর ২০১৯      

অনলাইন ডেস্ক

বলিউডের অনেক তারকাই দাম্পত্য জীবনের টানাপোড়েনের জেরে বিচ্ছেদের পথে হাঁটেন। কিন্তু বিচ্ছেদের পরও তাদের অনেকেই বন্ধুত্ব বজায় রেখে চলেছেন। হৃত্বিক রোশন ও সুজান খানকে প্রায়ই তাদের ছেলেদের সঙ্গে নিয়ে বাইরে ঘুরতে দেখা যায়। হৃত্বিক-সুজান ছাড়াও আমির-রিনা, আরবাজ-মালাইকা, দিয়া-সাহিলদের বন্ধুত্ব চোখে পড়ার মতো। 


হৃত্বিক রোশন ও সুজান খান:

হৃত্বিক রোশন ও সুজান খানের ২০১৪ সালে অফিসিয়ালি দাম্পত্য বিচ্ছেদ ঘটে। তারপরও তারা বন্ধুত্ব বজায় রেখে চলেছেন। ছুটির দিনে মাঝে মাঝেই তারা একসঙ্গে বাইরে ঘুরতে যান। কিংবা সিনেমা দেখতে যান। একজন আরেকজনের কাজে সবসময় উৎসাহ দেয়। ২০১৮ সালে হৃত্বিক সামাজিক মাধ্যমে একটি ছবি পোস্ট করে লেখেন ‘আমার এবং ছেলেদের এই ছবি আমার কাছের বন্ধু (সাবেক স্ত্রী) তুলে দিয়েছে।’ এ থেকেই বোঝা যায় তারা এখনো একসঙ্গে আনন্দময় সময় কাটান।


আরবাজ খান ও মালাইকা অরোরা:

২০১৬ সালে আরবাজ খান ও মালাইকা অরোরা ১৮ বছরের দাম্পত্য জীবনের ইতি টানেন। এরপরও তাদের বিভিন্ন পার্টিতে একসঙ্গে বেশ সাবলীলভাবে ছবি তুলতে দেখা যায়। ২০১৭ সালে মুম্বাইতে জাস্টিন বিবারের কনসার্টে পুত্র আরহানের সঙ্গে সঙ্গ দিতে দেখা যায় আরবাজ-মালাইকাকে। মালাইকার ইয়োগা স্টুডিও উদ্বোধনের সময়ও পাশে আরবাজকে দেখা যায়। ২০১৮ সালে আরবাজ খানের মায়ের জন্মদিনেও মালাইকাকে দেখা যায়।


আমির খান ও রিনা দত্ত:

বলিউডের হার্টথ্রুব আমির খান ও রিনা দত্ত ২০০২ সালে ১৬ বছরের দাম্পত্য জীবনের অবসান ঘটান। বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানে দুজনকে প্রায়ই একসঙ্গে দেখা যায়। শুধু আমির নয়, তার বর্তমান স্ত্রী কিরণ রাওকে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে রিনা দত্তের সঙ্গে দেখা যায়।


অনুরাগ কাশ্যপ ও কাল্কি কোয়েচলিন:

‘দেব ডি’ সিনেমা করার সময় ২০০৯ সালে পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপের সঙ্গে প্রেম হয় কাল্কি কোয়েচলিনের। কয়েক বছর প্রেম করার পর ২০১১ সালে তারা বিয়ে করেন। কিন্তু বিয়ের দুই বছরের মাথায় ২০১৩ সালে তাদের বিচ্ছেদ হয়ে যায়। এরপরও তারা বন্ধুত্ব বজায় রেখে চলেছেন। অনুরাগ কাশ্যপের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর ইজরায়েলি পিয়ানোবাদক গাই হার্সবার্জের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ান কাল্কি। কিছুদিন আগে গাই হার্সবার্জের সন্তান গর্ভে আসার সুখবর দেন এই অভিনেত্রী। এ খবরে অনুরাগ সবচেয়ে ভালো প্রতিক্রিয়া দিয়েছিলেন বলে মুম্বাই মিররকে জানান কাল্কি কোয়েচলিন।


দিয়া মির্জা ও সাহিল সাংঘা:

দিয়া মির্জা ও সাহিল সাংঘা এই বছরে ১১ বছরের সম্পর্কের ইতি টানেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিচ্ছেদের খবর জানিয়ে দুজনেই একসঙ্গে জানান, আমাদের দুজনের পথ এখন দু'দিকে। একে অপরের প্রতি ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা বজায় থাকবে। তারা আগের মতো বন্ধুত্ব বজায় রাখবেন বলেও জানান। শুধু সামাজিক মাধ্যমে ঘোষণা দিয়েই থেমে থাকেননি, এখনো তারা সবক্ষেত্রে বন্ধুত্ব বজায় রেখে চলেছেন। বিচ্ছেদের পর বলিউডে কান পাতলেই শোনা যেত, সাহিল এক অভিনেত্রীর প্রেমে পড়ায় তাদের বিচ্ছেদ হয়। দিয়া মির্জা এ খবর শোনামাত্র সত্যতা নেই বলে জানান।