নতুন বছরে দুটি ছবি মুক্তি পাবে: মৌসুমী হামিদ

প্রকাশ: ২৭ নভেম্বর ২০১৯       প্রিন্ট সংস্করণ

বিনোদন প্রতিবেদক

মৌসুমী হামিদ

মৌসুমী হামিদ

মৌসুমী হামিদ। মডেল ও অভিনেত্রী। বাংলাভিশনে প্রচার হচ্ছে তার অভিনীত ধারাবাহিক নাটক 'জায়গীর মাস্টার'। এ নাটক ও অন্যান্য প্রসঙ্গে কথা হলো তার সঙ্গে-

'জায়গীর মাস্টার' নাটকে 'আলতাবানু' চরিত্রটি নিয়ে দর্শক কী বলছেন?

'আলতাবানু' চরিত্রটি আমাদের সমাজেরই চেনাজানা চরিত্র। বোনের সঙ্গে আলতাবানুর নানা খুনসুটি লেগেই থাকে। আমি ব্যক্তিগতভাবে চরিত্রটি বেশ উপভোগ করছি। ইতোমধ্যে দর্শকরা নাটকটি সম্পর্কে তাদের ভালো লাগার কথা আমাকে জানিয়েছেন। এ ধারাবাহিকটি যখন প্রচার শুরু হয়েছিল, তখন অনেকেরই ধারণা ছিল জায়গীর মাস্টার ছাত্রীদের সঙ্গে প্রেম করবে। এখানে তা দেখানো হয়নি। তাকে দেখানো হয়েছে পরিবারের একজন সদস্য হিসেবে। আর জায়গীর মাস্টারের সঙ্গে তার ছাত্রীদের সম্পর্ক বেশ পছন্দ করছেন দর্শক।

সম্প্রতি 'বেমানান' ধারাবাহিক প্রচার শুরু হয়েছে। দর্শকদের কেমন সাড়া পাচ্ছেন?

নাটকটি প্রচার শুরু হয়েছে কয়েক মাস হতে চলল। এরই মধ্যে দর্শক এটি নিয়ে ইতিবাচক মন্তব্য করেছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও নাটকটি নিয়ে শুভকামনা জানিয়েছেন। তা ছাড়া আমার মনে হয় নাটকের রচয়িতা ও নির্মাতা শিহাব শাহীন নাটকের বিষয়বস্তুকে ভালোভাবে পর্দায় তুলে ধরেছেন। অ্যাপার্টমেন্টে বসবাসকারী তিন জোড়া দম্পতির সম্পর্কের জটিলতা, টানাপড়েন এবং হাস্যরসাত্মক নানা ঘটনার মধ্য দিয়ে এগিয়ে যায় নাটকের গল্প।

আপনার অভিনীত দুটি ছবির কাজ শেষ। কবে মুক্তি পাবে?

বেশ আগেই 'কাঠগড়ায় শরৎচন্দ্র' ছবির কাজ শেষ হয়েছে। এটি পরিচালনা করেছেন আরিফুর জামান আরিফ। অজ্ঞাত কারণে ছবির মুক্তি থেমে আছে। আর গাজী রাকায়েতের পরিচালনায় 'গোর' ছবির কাজও শেষ। আশা করছি নতুন বছরে দুটি ছবি মুক্তি পাবে। দুটি ছবিই গল্পপ্রধান। অভিনয় করার দারুণ সুযোগ ছিল। একজন শিল্পী হিসেবে ছবিতে নিজেকে ভাঙতে কোনো কমতি রাখিনি। আশা করছি দুটি ছবিই দর্শকের প্রত্যাশা পূরণ করবে।

শুনেছি, একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন?

হ্যাঁ, 'দ্য সানরাইজ' নামে এ চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন নাজমুল হাসান। সম্প্রতি এর শুটিং শেষ হয়েছে। আর এতে আমার বিপরীতে অভিনয় করেছেন শ্যামল মাওলা। এতে ভিন্নরূপে দর্শক দেখতে পাবেন। স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি সম্পর্কে এর বেশি বলতে চাই না।

আপনাকে অনেক নাটক-টেলিছবিতে নাম ভূমিকায় দেখা গেছে। এ ধরনের চরিত্র চিত্রণের কী কোনো চাপ অনুভব করেন?

সব সময়ই অপেক্ষা করি একটি ভালো চরিত্রের জন্য। নাটকে কাজের যখন প্রস্তাব আসে, প্রথমেই চরিত্র নিয়ে ভাবি। মেকআপ থেকে শুরু করে কস্টিউম, গেটআপ সব কিছু নিয়ে আলাদা প্রস্তুতি থাকে। এসব কিছু মনের মতো হলেই ক্যামেরার সামনে নিজেকে সঁপে দেই। আর নাম ভূমিকায় অভিনয়ে চাপ একটু বেশি। দর্শকের বেশি মনোযোগ থাকে এই চরিত্রটির ওপর। সে ক্ষেত্রে অভিনয় নিয়ে আরও বেশি ভাবতে হয়।

এবার ব্যক্তিগত প্রসঙ্গে আসা যাক। প্রেম-বিয়ে নিয়ে কী ভাবছেন?

প্রেম নিয়ে ভাবার সুযোগ কই [হাসি]। এখন কাজ নিয়ে ব্যস্ততায় দিন চলে যায়। এসব বাস্ততাকে ডিঙিয়ে প্রেমে জড়ানো কঠিন। তাই তো প্রেমে জড়াতে চাই না। বিয়ে নিয়ে আরও পরে ভাবব।