শবনম ফারিয়া। মডেল ও অভিনেত্রী। দীপ্ত টিভিতে প্রচার হচ্ছে তার অভিনীত ধারাবাহিক নাটক 'বকুলপুর'। এ নাটক, বর্তমান ব্যস্ততা ও অন্যান্য প্রসঙ্গে কথা হয় তার সঙ্গে-

'বকুলপুর' ধারাবাহিকটি এ সময়কার ধারাবাহিক থেকে কতটা আলাদা?

অনেক আলাদা। নাটকের কাহিনি গড়ে উঠেছে বকুলপুর গ্রামের ঘটনা নিয়ে। এই গ্রামে তালুকদার ও মণ্ডল গোষ্ঠীর মধ্যে যে শীতল যুদ্ধ রয়েছে, তা নাটকের পরতে পরতে উঠে এসেছে। তাছাড়া পারিবারিক টানাপোড়েন নিয়ে এটি নির্মিত হলেও এর গল্পে রয়েছে বৈচিত্র্য। নির্মাতা প্রতিটি পর্বে ভিন্নভাবে গল্প উপস্থাপনের চেষ্টা করেছেন।

অনেক দিন ধরে 'ফ্যামিলি ক্রাইসিস' নাটকটি প্রচার হচ্ছে। কেমন সাড়া পাচ্ছেন?

বেশ ভালো। নাটকে শুধু আমার অভিনীত চরিত্র 'রুমা'কে নিয়েই নয়; অন্যান্য চরিত্র নিয়েও দর্শকের নানারকম ইতিবাচক মন্তব্য শুনতে পাই। এই নাটকের চরিত্রগুলোয় চেনাজানা মানুষের ছায়া খুঁজে পেয়েছেন বলেও দর্শক জানিয়েছেন। দর্শকের এই ভালো লাগার পেছনে আমার সহশিল্পীদের পাশাপাশি নির্মাতা মোস্তফা কামাল রাজেরও ভূমিকা রয়েছে।

অভিনেতা নির্মাতা তৌকীর আহমেদের নতুন ধারাবাহিক 'রূপালি জোছনায়' কাজ করছেন। কেমন ছিল সে অভিজ্ঞতা?

গত বছরের ডিসেম্বরে এ ধারাবাহিকে অভিনয় শুরু করেছি। তৌকীর ভাই যখন নিয়মিত অভিনয় করতেন, তখন অনেক ছোট ছিলাম। ফলে তার অভিনয় সেভাবে দেখার সুযোগ হয়নি। কিন্তু চলচ্চিত্র নির্মাতা তৌকীরের কাজগুলো খুব গভীর মনোযোগ দিয়ে দেখেছি। তার কাজ দেখে ভক্ত বনে গেছি একেবারে। এ রকম একজন গুণী মানুষের সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতাই অন্যরকম। সৌভাগ্যও বলতে পারেন। তার কাছ থেকে এরই মধ্যে অনেক কিছু শিখেছি। পারিবারিক গল্প নিয়ে এ নাটকটি নির্মিত হয়েছে। প্রচার হবে চ্যানেল আইয়ে।

নতুন বছরে নতুন ছবির খবর কি পাওয়া যাবে?

প্রথম ছবি 'দেবী' দিয়েই দর্শকের ভালোবাসা পেয়েছি। ছবিটি দেখে দর্শক যে ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ আমার প্রতি দেখিয়েছেন, তা আগামীতে কাজের ব্যাপারে অনেক সতর্ক করে তুলেছে। তাই সিনেমায় বুঝেশুনেই অভিনয় করতে চাই। যে জন্য নতুন ছবিতে অভিনয়ে একটু সময় নিচ্ছি। 'দেবী' মানের কাছাকাছি ছবির অফার এখনও পাইনি। ভালো ছবি না হলে কাজ করার ইচ্ছা নেই। কবে নাগাদ নতুন ছবিতে অভিনয়ের ঘোষণা দিতে পারব, তা বলতে পারছি না।

অন্যান্য ব্যস্ততা কী নিয়ে?

ধারাবাহিকের পাশাপাশি বেশ কয়েকটি খণ্ড নাটকের কাজ করছি। ঈদের কাজ এখন শুরু হয়েছে। চলতি মাসের ১৫ তারিখ থাইল্যান্ডে যাবার পরিকল্পনা করছি। নাটকটির নাম এখনও ঠিক হয়নি। এটি পরিচালনা করবেন সাইদুল ইসলাম রাসেল। আমার কাজের তালিকা বড় নয়। কারণ একনাগাড়ে বেশি কাজ কখনোই করতে চাই না। যা করব, তার প্রতি নিজের ভালো লাগা এবং দায়িত্ববোধ থাকতে হবে, এটাই আমি বিশ্বাস করি।

নতুন বছরের পরিকল্পনা কী?

নতুন বছরে আলাদা কোনো পরিকল্পনা নেই। কাজে আরও মনোযোগী ও ব্যস্ত হতে চাই। শরীরের ওজন একটু বেড়েছে। তা কমিয়ে এ বছর নতুন এক ফারিয়াকে দর্শকের সামনে হাজির করতে চাই।

কাজের কথা অনেক হলো, এবার অন্য প্রসঙ্গ। এ মুহূর্তে শবনম ফারিয়া কাকে হিংসা করে?

না, কাউকে হিংসা করার প্রশ্নই ওঠে না। যে যার জায়গায় যোগ্যতা দিয়ে মিডিয়ায় এসেছেন। তবে কেউ ভালো কাজ করলে ভালো লাগে। তাকে দেখে উৎসাহ পাই। জয়া আপু [জয়া আহসান] এখন যে কাজগুলো দেশে বা কলকাতায় করছেন, সে রকম কাজ করার ইচ্ছা জাগে।

আপনি কাউকে হিংসা করেন না। আপনাকে কেউ হিংসা করে?

মনে হয় কেউ করে না। আমি আহামরি কিছু করিনি যে আমাকে কারও হিংসা হতে পারে [হাসি]।