বিজেপির তোপের মুখে দীপিকা

প্রকাশ: ০৮ জানুয়ারি ২০২০     আপডেট: ০৮ জানুয়ারি ২০২০   

অনলাইন ডেস্ক

জেএনইউতে মঙ্গলবার দীপিকা পাড়ুকোন- ফেসবুক থেকে নেওয়া

জেএনইউতে মঙ্গলবার দীপিকা পাড়ুকোন- ফেসবুক থেকে নেওয়া

ভারতের নয়াদিল্লির জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ে (জেএনইউ) আক্রান্ত শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়িয়ে ক্ষমতাসীন দল বিজেপি নেতাদের তোপের মুখে পড়েছেন বলিউড অভিনেত্রী দিপীকা দীপিকা পাড়ুকোন।

মঙ্গবার রাতে জেএনইউতে যাওয়ার পরপরই তাকে নিয়ে সমালোচনা শুরু হয় বলে এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

'পদ্মাবত' অভিনেত্রীর সমাোচনা করে তোপ দেগেছেন বিজেপি মুখপাত্র সম্বিত পাত্রসহ বিজেপি নেতা, মন্ত্রীরা। বিষয়টিকে 'টুকরো, টুকরো গ্যাং' কে সমর্থন করা বলে মন্তব্য করেছেন তারা। পাশাপাশি দীপিকার সিনেমা বয়কটেরও ডাক দেওয়া হয়েছে।

অবশ্য বিষয়টি স্পষ্ট করে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর বলেন, যে কেউ যে কোনও জায়গায় যেতে পারেন, এবং কোনও বিষয়ে মতামত দিতেই পারেন।এটা নিয়ে কোনও আপত্তি নেই।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জেএনইউর শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়াতে সেখানে গিয়েছিলেন বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী দীপিকা। অবশ্য এ সময় সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে চাননি অভিনেত্রী। ক্যাম্পাস ত্যাগের পরই দীপিকার শিক্ষার্থীদের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে দাঁড়ানোর প্রশংসা ছড়িয়ে পড়ে। তবে কিছুক্ষণ পরেই শুরু হয় সমালোচনা।

দীপিকার সমালোচনা করে বিজেপি নেতা তেজিন্দর বাগ্গা টুইট করে বলেন, আপজল গ্যাং এবং টুকরে টুকরে গ্যাংকে সমর্থন করায় দীপিকা পাড়ুকোনের সিনেমা বয়কট করাই সঠিক হবে।

তার আসন্ন সিনেমা ছাপাক বয়কট করারও ডাক দেওয়া হয়েছে। ওই সিনেমায় একটি অ্যাসিড আক্রান্ত মেয়ের ভূমিকায় অভিনয় করছেন দীপিকা পাড়ুকোন।

রাতেই সম্বিত পাত্র টুইট করেন। এর প্রতিক্রিয়া দেন অন্যান্য নেতারাও। বিজেপি নেতা শাহনেওয়াজ হোসেন বলেন, দীপিকার উচিত ছিল 'হিংসার প্রকৃত ঘটনা সম্পর্কে জানা' এবং বামপন্থী সংগঠনের প্রতি তার দেখানো সহানুভূতি 'পক্ষপাতমূলক'।

দীপিকার জেএনইউতে সফরের সমালোচনা করে বিজেপি নেতা রাম কদম বলেন, এটা 'দুর্ভাগ্যজনক' এবং ওই জায়গায় তার 'জাতীয় স্বার্থের কথা চিন্তা করে' যাওয়া উচিত ছিল।সাংবাদিকদের তিনি বলেন, একজন অভিনেত্রীর অভিনেত্রী হওয়া উচিত। দেখে মনে হচ্ছে তিনি রাজনৈতিক দলের মুখপাত্র।

দীপিকার আসন্ন ছবি 'ছাপাক' বয়কটের ডাক দিয়ে দিল্লির বিজেপি নেতা রমেশ বিধুরি বলেন, যারা দেশের বিরুদ্ধে তাদের সঙ্গে না গিয়ে একজন বলিউড অভিনেতার উচিত সিনেমার মাধ্যমে দেশের যুব সম্প্রদায়কে 'ইতিবাচক বার্তা' দেওয়া। 

রোববার জেএনইউতে ঢুকে মুখোশধারী দুর্বৃত্তরা লোহার রড নিয়ে শিক্ষার্থীদরে ওপর হামলা চালায়। অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধেও। আক্রান্তদের বিরুদ্ধেই এফআইআর করেছে পুলিশ। তাদের বিরুদ্ধে হোস্টেল ফি বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ করার সময় বাম ও ডানপন্থী শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষের অভিযোগ তোলা হয়েছে।