ছোটবেলা থেকে যে কোনো নতুন জায়গায় ঘুরে বেড়ানো আমার খুব পছন্দের। তাই সুযোগ পেলে ছুটে যাই পৃথিবীর চোখ ধাঁধানো রূপ দেখতে। চলচ্চিত্র উৎসবে যোগ দিতে বিভিন্ন দেশে আমার যাওয়ার সুযোগ হয়েছে। নতুন কোনো দেশ ভ্রমণ মানে অন্যরকম এক অভিজ্ঞতা। জীবনে অনেকবার এমন অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হয়েছি। নতুন দেশ নতুন সংস্কৃতি নতুন নতুন মানুষ- সবমিলিয়ে অন্যরকম এক ভালো লাগা।

কোনো দেশে যাওয়ার আগে সে দেশ, দেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য সম্পর্কে জানা ও বোঝার চেষ্টা করি। এই তো ক'দিন আগে তুষার ঝড়ের দেশ কানাডায় গিয়েছিলাম ছেলের কাছে। আবারও মুগ্ধ চোখে দেখা হলো সেখানকার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য। ছেলে অনিক থাকে ওয়াটারলুতে। সেখানকার বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়ানো হয়েছে। এবার যখন ওয়াটারলুতে গিয়েছি তখন বেশ শীত ছিল। চারদিকে অনেক ঠাণ্ডা। জমে যাওয়ার মতো অবস্থা। যদিও এ রকম আবহাওয়ায় ঘুরে বেড়ানো একটু কঠিন ছিল। তীব্র শীত উপেক্ষা করে ঘুরে বেশ আনন্দময় সময় কাটিয়েছি। তাড়াহুড়ার মধ্যেই সব করতে হয়েছে। কারণ শীতে সেখানকার বড় বড় দোকানপাট, ভালো দর্শনীয় স্থান, সবকিছু আগেভাগে বন্ধ হয়ে যায়। সেখানকার বেশ পুরোনো কিছু ঐতিহ্যবাহী স্থান ঘুরে দেখার সুযোগ হয়েছে। কানাডা ছাড়াও আমেরিকা, জার্মানি, ইতালিসহ অনেক দেশেই ঘুরেছি। ইতালির পম্পেই খুব প্রিয় জায়গা। বিদেশ ঘুরে পার্কে ঘোরাঘুরি, ফিশিং গেমে আনন্দময় সময় কাটিয়েছি। তবে সুইজারল্যান্ড আমাকে ভীষণ টানে। সে দেশে বারবারই ফিরে যেতে মন চায়।

সুইজারল্যান্ডকে অনেকে বলে, পৃথিবীর স্বর্গরাজ্য। কেন বলে তা না দেখলে বলে বোঝানো যাবে না। যখনই সুইজারল্যান্ড যাই, মুগ্ধ হয়ে দেখি জলপ্রপাতের দুর্বার ছুটে চলা, সাগর পাড়ের পড়ন্ত বিকেল আর সবুজে ঢাকা পাহাড়। পৃথিবীর যত দেশেই যাই না কেন, মন সব সময় দেশেই পড়ে থাকে। ঘুরে বেড়ানোর জন্য বিভিন্ন দেশ চষে বেড়াতে হবে, এমনটি আমি মনে করি না। পাহাড়-সমুদ্র এ দেশেও আছে। যার সৌন্দর্যে মুগ্ধ হননি এমন মানুষ খুব কম পাওয়া যাবে। দেশের কক্সবাজার ভ্রমণপিপাসুদের অনেক টানে। সেখানে গেলে আমারও মন ভরে যায়। প্রশান্তির পরশ মেলে। বান্দরবান ঘুরেছি বহু আগে। বান্দরবানের নীলগিরি, উঁচু পাহাড় সবসময় হাতছানি দিয়ে ডাকে। আমাদের সুন্দরবন অনেক সুন্দর। জাহাজ থেকে নেমে ছোট নৌকায় বনের ভেতরটায় ঘুরতে অন্যরকম আনন্দ জাগে মনে।