‘সেই সুযোগটা এখন পেয়েছি’

প্রকাশ: ০৩ জুন ২০২০     আপডেট: ০৩ জুন ২০২০       প্রিন্ট সংস্করণ

বিনোদন প্রতিবেদক

মোশাররফ করিম

মোশাররফ করিম

মোশাররফ করিম। অভিনেতা। ঈদে প্রচার হয়েছে তার অভিনীত বেশ কয়েকটি নাটক ও টেলিছবি। সেসব নাটক ও অন্যান্য প্রসঙ্গে কথা হয় তার সঙ্গে-

সারা বছর ব্যস্ত থাকেন। কাজকর্ম ছাড়া এই অবসর কেমন লাগছে?

এটা তো অবসর নয়, বন্দি জীবন। টিভিতে অভিনয় শুরুর পর সম্ভবত এই প্রথম শুটিং না করে অলস সময় পার করছি। সারাবছর এত কাজের চাপ থাকে যে নিজের পরিবারকেও ঠিকমতো সময় দিতে পারিনি। এখন সেই সুযোগ পেয়েছি। হোম কোয়ারেন্টাইনের ভালো লাগা এটুকুই।

করোনার কারণে দীর্ঘদিন শুটিং বন্ধ ছিল। তার পরও এবার ঈদে আপনার ও অন্যান্য অভিনেতা-অভিনেত্রীর অসংখ্য নাটক বিভিন্ন চ্যানেলে প্রচার হয়েছে। লকাডাউনের আগেই কি সব নাটক তৈরি হয়েছে?

অন্যদের কথা বলতে পারছি না। আমি লকডাউনের আগে বেশ কয়েকটি নাটক ও টেলিছবিতে অভিনয় করেছিলাম। সেগুলোই প্রচার হয়েছে বিভিন্ন চ্যানেলে। এগুলো হলো আনিসুর রহমান রাজিবের 'আমি পাগল বলছি', মাবরুর রশিদ বান্নার 'ভিউ বাবা', ইমরাউল রাফাতের 'ঈদ মোবারক' ও নাজমুল হুদা ইমনের 'এখানে তো কোনো ভুল ছিল না'র কাজ করেছিলাম। এ ছাড়াও সাগর জাহানের 'তালমিছরি না হাওয়াই মিঠাই-২' সহ আরও কয়েকটি ঈদ ধারাবাহিকের সিক্যুয়েলে অভিনয়ের জন্যও সময় দিয়েছিলাম। কিন্তু সেগুলো হয়নি।

ঘরে থেকেই আফজাল হোসেনের 'যার যার ঘরে থেকে একসাথে' স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবিতে অভিনয় করলেন। কেমন ছিল ঘরে থেকে কাজের অভিজ্ঞতা?

এখন যা কিছু করছি, তার অনেক কিছুই ছিল ভাবনার অতীত। 'যার যার ঘরে থেকে একসাথে' ছবিতে নাটকের মানুষদের চিন্তা-ভাবনা ও অভিজ্ঞতা তুলে ধরা হয়েছে। সবার কথা ও অভিব্যক্তিকে এক ক্যানভাসে ধরে রাখার চেষ্টা তাতে নির্মাতা আফজাল হোসেন সফল হয়েছেন এটা মানতেই হবে। তা ছাড়া আফজাল হোসেনের মতো বড় মাপের নির্মাতার সঙ্গে কাজ করতে পারাও আনন্দের।

লকডাউনের ঠিক আগমুহূর্তে কলকতায় 'ডিকশনারি' ছবির কাজ শুরু করেছিলেন। এর কাজ কতটুকু শেষ হয়েছিল?

'ডিকশনারি' ছবির কাজ শুরু করার পরই লকডাউনের কবলে পড়েছি। তাই ছবির বাকি কাজ কবে শেষ হবে তা এখনই বলতে পারছি না। এতে আমি অভিনয় করেছি একজন শিল্পপতির চরিত্রে। এতে আমার বিপরীতে অভিনয় করেছেন পৌলমি। ছবিটি পরিচালনা করেছেন ব্রাত্য বসু।

আবারও শুটিং শুরু হলো। আপনি শুরু করবেন কবে থেকে?
অনেকেই এরই মধ্যে আমার সঙ্গে শুটিংয়ের ডেট নিয়ে আলোচনা করেছেন। কিন্তু এখনই কিছু বলতে পারছি না। আরও কয়েকটি দিন যাক, চারপাশের সার্বিক পারিস্থিতি দেখেই কাজ শুরু করব।