গোপন ছবি ফাঁস ও সন্মানহানি থেকে রক্ষা পেতে এবার আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন এক তেলেগু অভিনেত্রী। ওই অভিনেত্রীর নাম শ্রাবণী  কোন্দাপালি। মঙ্গলবার রাতে হায়দরাবাদে অভিনেত্রীর বাড়িরর বাথরুম থেকে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

অভিনেত্রীর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য স্থানীয় হাসপাতালে পাঠিয়েছে পুলিশ।

হঠাৎ কেন আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নিলেন অভিনেত্রী, এই নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছে। তবে পরিবার সূত্রে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, হেনস্তা ও ব্ল্যাকমেইলের কারণেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন শ্রাবণী। সম্প্রতি টিকটকে নতুন বন্ধুত্ব হয় দেবরাজ রেড্ডি নামের এক ব্যক্তির সঙ্গে। ওই ব্যক্তিই শ্রাবণীকে আত্মহত্যা করতে বাধ্য হয়েছেন। দেবরাজের জন্যই শ্রাবণী এই কাজ করেছে বলে জানিয়েছে তার পরিবার।

তাদের ভাষ্য, তেলেগু অভিনেত্রী শ্রাবণীকে দীর্ঘদিন ধরে হেনস্তা ও ব্ল্যাকমেইল করছিলেন দেবরাজ। তারপর থেকেই ক্রমাগত ফোন হুমকি পেতে শুরু করে।এমনকী গোপন ছবি ফাঁস করে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ব্ল্যাকমেল করা শুরু করেন দেবরাজ। ছবি ডিলিট করার জন্য অর্থও দাবি করে সে। তার কথামতো কিছু অর্থ দিলেও থেমে থাকেনি দেবরাজের ব্ল্যাকমেইল। 

এ থেকে পরিত্রাণ পেতে গত ২২ জুন পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেন শ্রাবণী।  এরপরও তিনি ক্রমাগত হুমকি ও ব্ল্যাকমেইল করে যাচ্ছিলেন শ্রাবণীকে। এক পর্যায়ে সন্মানহানির হুমকি দেয় দেবরাজ। এতে করে অতিষ্ট হয়ে মঙ্গলবার রাতে নিজ বাড়ির বাথরুমে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন এ অভিনেত্রী।

এ ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে দেবরাজের বিরুদ্ধে অভিযোগও দায়ের করা হয়েছে। সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া