২০১৯ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে আজীবন সম্মাননা পেলেন মাসুদ পারভেজ (সোহেল রানা) ও কহিনুর আক্তার সুচন্দা। সেরা ছবির পুরস্কার পাচ্ছে দ্বৈতভাবে ‘ন ডরাই ও ‘ফাগুন হাওয়ায়’। 

বৃহস্পতিবার তথ্য মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে একথা জানানো হয়। এতে বলা হয়, ২০১৯ সালের জন্য ২৬টি বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে। তার মধ্যে সেরা ছবি হিসেবে দ্বৈতভাবে পুরস্কার ঘরে তুলেছে ‘ন ডরাই ‘ ও ‘ফাগুন হাওয়ায়’। ‘ন ডরাই’ সিনেমার জন্য সেরা পরিচালক হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন তানিম রহমান অংশু।

সেরা অভিনেতা হিসেবে 'আবার বসন্ত' ছবিতে অভিনয়ের জন্য পুরস্কার পেলেন তারিক আনাম খান।' ন ডরাই' ছবিতে অভিনয়ের জন্য সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পেয়েছেন সুনেরাহ বিনতে কামাল।

জাহিদ হাসান 'সাপলুডু' সিনেমায় খল চরিত্রে অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ খলঅভিনেতার পুরস্কার পেয়েছেন।

পার্শ্ব চরিত্রে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসেবে ফজলুর রহমান বাবুর হাতে উঠবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। তিনি পুরস্কার পাচ্ছেন তৌকীর আহমেদ পরিচালিত ‘ফাগুন হাওয়ায়’ অভিনয় করার জন্য। পার্শ্ব চরিত্রে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী নারগিস আকতার ‘মায়া দ্য লস্ট মাদার’ ছবির জন্য পেয়েছেন জাতীয় এ স্বীকৃতি। 

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৯-এ সবচেয়ে বেশি পুরস্কার পেয়েছে কবি মাসুদ পথিক পরিচালিত 'মায়া দ্য লস্ট মাদার' ছবিটি। মোট আটটি বিভাগে পুরস্কার পাচ্ছে ছবিটি। ছয়টি বিভাগে পুরস্কার পেয়েছে 'ন ডরাই' ছবিটি। তিনটি করে পুরস্কার পাচ্ছে ইমপ্রেস টেলিফিল্মের 'ফাগুন হাওয়ায়' ও শাকিব খান-বুবলী অভিনীত দেশ বাংলা মাল্টিমিডিয়ার 'মনের মতো মানুষ পাইলাম না' ছবি।

সেরা সংগীত পরিচালক হিসেবে ইমন চৌধুরী, সেরা গায়ক হিসেবে মৃনাল কান্তি দাস, সেরা গায়িকা হিসেবে মমতাজ বেগম ও ফাতিমা তুয যাহরা ঐশী পেয়েছেন পুরস্কার।

শ্রেষ্ঠ শিশুশিল্পী হিসেবে আফরীন আক্তার ও নাইমুর রহমান, সেরা সুরকার তানভীর তারেক ও আবদুল কাদির, সেরা গীতিকার কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী ও নির্মলেন্দু গুণ পুরস্কার পেয়েছেন।