'এখন আর বসে থাকার সময় নেই। নিজের প্রডাকশন হাউজ থেকে নিয়মিত সিনেমা বানাচ্ছি। অন্য প্রযোজনা সংস্থারও সিনেমা করছি। কিভাবে দেশের সিনেমাকে আরও উন্নতি করা যায় সে পরিকল্পনা নিয়েই এগোচ্ছি। তার অংশ হিসেবেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরব হওয়া। বিশ্বের প্রতিটি সেক্টরের তারকারাই এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরব। এ কথা অস্বীকারের উপায় নেই যে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এখন আমাদের যাপিত জীবনের একটা অংশ হয়ে দাঁড়িয়েছে।’ বলছিলেন ঢাকাই ছবির তুমুল জনপ্রিয় নায়ক শাকিব খান। 

বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে ১৬ ডিসেম্বর ওটিটি প্লাটফর্ম আই থিয়েটারে মুক্তি পাচ্ছে শাকিব খান অভিনীত ছবি ‘নবাব এলএল.বি’। এই ছবির মধ্য দিয়ে শাকিব খানের কোনো ছবি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি না পেয়ে সরাসরি মুক্তি পাচ্ছে অনলাইন প্লাটফর্মে। ছবিটি মুক্তির আগে ‘শাকিব খান’ নামে নিজের ব্যক্তিগত ইউটিউব চ্যানেল খুলেছেন এ তারকা। যদিও এর আগে শাকিব খানকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রামে সরব থাকতে দেখা গেছে। ইউটিউবে নিজের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান এসকে ফিল্মসের নামেও রয়েছে একটি চ্যানেল।

  • এত কিছু করছি, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরব হচ্ছি। এর পেছনে কারণ একটাই- সিনেমা। বিশ্বব্যাপী আরও বেশি মানুষের কাছে বাংলা সিনেমার গ্রহণযোগ্যতা কিভাবে বাড়ানো যায়, কিভাবে আরও বেশি মানুষ আমাদের সিনেমা দেখেন, তার জন্যই এতসব করা। কারণ, সিনেমার বাইরে শাকিব খানের আর কিছুই নেই। সিনেমার বাইরে এক মুহূর্তও আমার থাকা হয় না।'

এসকে ফিল্মস ও সিনেমার শুটিংয়ের বাইরে নিজের নামে ইউটিউব চ্যানেল চালুর প্রয়োজন পড়লো কেনো? উত্তরে সমকালকে শাকিব খান বলেন, এসকে ফিল্ম আমার প্রযোজনা সংস্থার ইউটিউব চ্যানেল। ওই চ্যানেল প্রতিষ্ঠান থেকে নির্মিত সিনেমার ট্রেলার, ট্রিজার, গান ও সিনেমার ক্লিপস প্রচার করা হবে। আর ‘শাকিব খান’ চ্যানেলটি আমার ব্যক্তিগত। এতে আমার নিজস্ব মতামত, প্রতিক্রিয়া, শুটিংয়ের বিহাইন্ড দ্য সিন, ট্র্যাভেল ব্লগ প্রকাশ করা হবে।

তবে ইউটিউবে সম্প্রতি আসলেও বিষয়টি- শাকিব খানের দশ বছর আগের পরিকল্পনা, বলেই শনিবার সমকালের সঙ্গে আলাপে জানান তিনি।শাকিব খান বলেন, 'দশ বছর আগেই নিজের ব্যক্তিগত ইউটিউব চ্যানেল খোলার পরিকল্পনা করেছিলাম। সে সময় বিভিন্ন কারণে সেটা হয়ে উঠেনি। কিন্তু এখন তো আর বসে থাকার উপায় নেই। এসকে ফিল্মসও গুছিয়ে নিয়েছি। দক্ষ কিছু জনবলও নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। তারা সবসময় এসকে নিয়ে কাজ করছে। এর পাশাপাশি তাই ব্যক্তিগত চ্যানেলও দর্শকদের সামনে নিয়ে আসা। আমাকে যারা ভালোবাসেন সিনেমার বাইরেও আমার অনেক বিষয় জানতে ও দেখতে চান তারা এই চ্যানেলে চোখ রাখলে সব জানতে ও দেখতে পারবেন।'

এসব ছিল শাকিব খানের সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে সরব হওয়ার গল্প। কিন্তু ভক্তরা শাকিব খানের নতুন সিনেমার ব্যস্ততার খবর জানতে চান। ‌'নবাব এলএলবি'র পর নতুন কোন সিনেমার খবর জানাবেন এ নায়ক? কবেই বা নতুন ছবির শুটিং শুরু করবেন? বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন করতেই শাকিব খান বলেন, 'এবার বহুল প্রতীক্ষিত 'প্রিয়তমা' ছবির শুটিং শুরু করবো। বলা যায় ছবিটির প্রি-প্রডাকশনের কাজ চলছে এখন। পাশাপাশি আরও একটি ধামাকা খবর আছে ভক্তদের জন্য। বিস্তারিত এখনই নয়। কিছুদিন পরেই জানানো হবে।'

তবে শাকিব খান ফেসবুক, ইউটিউব, ইনস্টগ্রাম যেখানেই সরব হন না কেনো, এর পেছনে উদ্দেশ্য একটাই- সেটা দেশের সিনেমার দ্রুততর উন্নয়ন। বিশ্বব্যাপী আরও বেশি মানুষের কাছে বাংলা সিনেমার গ্রহণযোগ্যতা তৈরি করা।

শাকিব খান বলেন, 'এতো কিছু করছি, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরব হচ্ছি এর পেছনে কারণ একটাই। সেটা সিনেমা। বিশ্বব্যাপী আরও বেশি মানুষের কাছে বাংলা সিনেমার গ্রহণযোগ্যতা কিভাবে বাড়ানো যায়, কিভাবে আরও বেশি মানুষ আমাদের সিনেমা দেখে, তার জন্যই এতসব করা। কারণ. সিনেমার বাইরে শাকিব খানের আর কিছুই নেই। সিনেমার বাইরে এক মুহূর্তও আমার থাকা হয় না।'

এত কথা বলার পরও নবাব এলএলবি দেখতে দর্শকদের আহ্বান জানাতে ভুল করলেন না শিকারি খ্যাত এ নায়ক। বললেন, ‘‘গল্প প্রধান ছবি ‘নবাব এলএল.বি’। আমাদের দেশে নারী নির্যাতন, ধর্ষণের বিষয়টি ক্রমেই ভয়ংকর আকার ধারণ করছে। নারীকে অসম্মানের প্রতিবাদ স্বরূপ ‘নবাব এলএল.বি’ ছবিটা আমি করেছি। আশা করি, ছবিটি সবাই দেখবেন। কারণ, যাদের বিবেক এখনও মরে যায়নি, তাদেরকে একটু হলেও নাড়া দেবে এই ছবিটি।’’

মন্তব্য করুন