ইয়াশ রোহান। মডেল ও অভিনেতা। 'শেষ চিঠি' ওয়েব ছবিতে অভিনয় করছেন তিনি। সুমন ধর পরিচালিত এ ছবি ও অন্যান্য প্রসঙ্গে কথা হলো তার সঙ্গে-

'শেষ চিঠি' ছবিতে অভিনয়ে আগ্রহী হলেন কেন?

ওয়েব মাধ্যমের প্রতি বরাবরই আমার আগ্রহ অন্যরকম। ছবির গল্প সময়োপযোগী। এটি প্রেম ও পারিবারিক বিষয়কে উপজীব্য করে নির্মিত হচ্ছে। এখানে আমাকে ভিন্ন একটি রূপে দর্শক দেখতে পাবেন। চরিত্রটি অনেক চ্যালেঞ্জিং। এতে প্রথমবার জুটি হয়েছি আমি আর দীঘি।  দর্শক এ ছবির মাধ্যমে নিজের জীবনের নানা ঘটনার যোগসূত্র খুঁজে পাবেন। সব মিলিয়ে এতে অভিনয়ে রাজি হয়েছি।

ওয়েব ছবিতে কি নিয়মিত কাজের ইচ্ছা রয়েছে?

ওয়েব ছবিতে অভিনয় করছি গল্পের কারণে। ভালো গল্প ও চরিত্র পেলে নিয়মিতই কাজ করব। এখানকার ওয়েব কনটেন্টগুলো বেশ শক্তিশালী। সিনেমা বা টেলিভিশনের মতো কোনো সেন্সরশিপ নেই। যে কোনো মানুষ যে কোনো জায়গায় বসে মোবাইল ফোনে কাজ দেখার সুযোগ পাচ্ছেন সহজেই। কাজের বেশ সাড়াও মিলছে। যেজন্য ওয়েব মাধম্যেই সবাই ঝুঁকছেন।

সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে আপনার অভিনীত ওয়েব ছবি 'কষ্টনীড়'। কেমন সাড়া পাচ্ছেন?

বেশ ভালো। আশফাক নিপুণের এ হইচইয়ের ছবিটি মুক্তির পর থেকে প্রচুর ফোন পেয়েছি। কাজটি আমারও পছন্দের একটি কাজ ছিল। দর্শকদের দেখে যে ভালো লেগেছে এটিই আমার কাছে বড় বিষয়।

অভিনয়ের ক্ষেত্রে কোন বিষয়কে প্রাধান্য দেন?

চরিত্র নিয়ে বেশি ভাবি। অনেক সময় দেখা যায় গল্প পছন্দ হলেও যে চরিত্রটা আমাকে করতে বলা হলো তা আমার পছন্দ হয় না। যে জন্য অনেক কাজই আমাকে ছাড়তে হয়েছে।

হাতে থাকা ছবির কী খবর?

রায়হান রাফির পরিচালনায় 'পরাণ' ছবির কাজ শেষ। ভালোবাসার গল্পের এ ছবিটি এখন মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে। আর আবু তাওহীদ হিরনের 'আদম' ছবির কাজ কিছু বাকি রয়েছে।

পরিচালনায় আপনার আগ্রহ ছিল। এ নিয়ে কিছু ভেবেছেন?

এখনও যে নেই তা নয়। এখনও আছে। আপাতত অভিনয় নিয়েই ব্যস্ত। কবে পরিচালনা করতে পারব তা জানি না।