১৯৭১ সালেল ৩ ডিসেম্বর। অর্লি বিমানবন্দর, প্যারিস, ফ্রান্স। বিমানবন্দরের ভিআইপি লাউঞ্জে চলছে সাজসাজ রব। কারণ সেদিন ফ্রান্সে আসছেন জার্মান ভাইস চ্যান্সেলর। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর থেকে দুই দেশের মধ্যে যে শীতল অবস্থা চলছিল তার পরিসমাপ্তি ঘটবে এই সফরেই। এমন সময় বিমানবন্দরের বাইরে একটা ট্যাপি থেকে নামে দীর্ঘকায় এক যুবক। পরনে নীল জ্যাকেট, পিঠে ব্যাকপ্যাক।

রানওয়েতে পাকিস্তান ইন্টারন্যশনাল এয়ারওয়েজের [পিআইএ] একটা বোয়িং ৭১১ বিমান দাঁড়ানো, কিছুক্ষণ পরেই আকাশে উড়বে সেটা। পাইলট সবকিছু দেখেশুনে নিচ্ছেন, রুটিন মোতাবেক। ঘড়িতে সময় তখন সাড়ে এগারোটার কাঁটা অতিক্রম করেছে। এমন সময় সিঁড়ি বেয়ে বিমানে উঠতে দেখা গেল সেই তরুণ জ্যাঁ কুয়েকে। এরপর অর্লি এয়ারপোর্টের রেডিও বার্তায় একটা মেসেজ এসেছে, সেটা খুলেই চোখ কপালে উঠলো রিসিভারের সামনে বসে থাকা অপারেটরের। বার্তায় লেখা- 'এই বিমানটা আমি ছিনতাই করেছি, আমার কথা না শুনলে পুরো বিমান উড়িয়ে দেওয়া হবে। আমার ব্যাগে বোমা আছে! কয়েক মিনিটের মধ্যেই রেড এলার্ট জারী করা হলো অর্লি এয়ারপোর্টে। নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তারা ততক্ষণে যোগাযোগ করতে সক্ষম হয়েছে জ্যাঁ ক্যুয়ের সঙ্গে। কি চায় সে, কেন বিমানে বোমা নিয়ে উঠেছে, কি তার উদ্দেশ্য? জবাব এলো, পূর্ব পাকিস্তানের স্বাধীনতাকামী মানুষের জন্যে বিশ টন ঔষধ বিমানে তুলে দিতে হবে, তাহলেই কেবল মুক্তি পাবে বিমানের নিরীহ যাত্রীরা।

এমন একজন স্বাধীনতাকামী মানুষ ও সত্যি ঘটনাটা অবলম্বনে এবার বাংলাদেশে নির্মিত হচ্ছে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। নাম 'জেকে ১৯৭১'। এটি নির্মাণ করছেন 'ভুবন মাঝি' ও 'গণ্ডি' ছবির নির্মাতা ফাখরুল আরেফীন খান। ছবিটির চিত্রনাট্য করছেন মাসুম রেজা। এতে থাকছে একটি মাত্র গান। ইংরেজিতে রচিত এই গানটি লিখেছেন ও গেয়েছেন সোলস ব্যান্ডের নাসিম আলী খান। আর পুরো ছবিটির সংগীত পরিচালনার দায়িত্ব নিয়েছেন পার্থ বড়ুয়া। 

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীর এক অভিজাত রেস্তোরায় ছবিটির আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন এই নির্মাতা। এই আয়োজনে আরও উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ম হামিদ, সংগীতশিল্পী নাসির আলী খান, অভিনেত্রী ত্রপা মজুমদার, অপর্ণা ঘোষ, অভিনেতা মাজনুন মিজানসহ আরও অনেকে। সংবাদ সম্মেললে ফাখরুল আরেফীন খান জানালেন এই ছবিতে জ্যাঁ ক্যুয়ে চরিত্রে অভিনয় করবেন পশ্চিমবঙ্গের অভিনেতা শুভ্র সৌরভ দাস। এর আগে তাকে দেখা গেছে পশ্চিমবঙ্গের বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রে। আর বিমানের পাইলটের ভুমিকায় অভিনয় করবেন সভ্যসাচী চক্রবর্তী। এছাড়াও আরও ৩৪ জন অভিনয়শিল্পী এতে অভিনয় করবেন। যা এখনও চুড়ান্ত হয়নি। সংবাদ সম্মেলনে ফাখরুল আরেফীন খান বলেন, ''১৯৭১ সালের ৩ ডিসেম্বর প্যারিসের আর্লি বিমানবন্দরে বাংলাদেশের জন্য জ্যাঁ ক্যুয়ে পাকিস্তানের পিআইএ-৭১১ বিমানটি যাত্রীসহ ছিনতাই করেছিলেন। সেদিন এই ক্যুয়ে কেমন করে কোন ভাবনা থেকে বিমানটি ছিনতাই করলেন। কী ঘটেছিল বিমানের ভেতরে। পুরো বিষয়টি আমরা পর্দায় তুলে ধরতে চাই। ফাখরুল আরেফীন খান আরও বলেন, 'এটা আমাদের গড়াই ফিল্মসের প্রথম আন্তর্জাতিক কাজ। মুক্তিযুদ্ধের সময় দেশের বিপদে পড়া মানুষদের সাহায্য করার জন্যই জ্যাঁ ক্যুয়ে বিমান ছিনতাই করেছিলেন। যদিও অফিসারদের চালাকির কারণে তিনি আটকা পড়েছিলেন সেদিন। কিন্তু ঠিকই তার শর্ত ধরে ২০ টন ওষুধ বাংলাদেশিদের জন্য এসেছিল।'

আসছে এপ্রিলের মাঝামাঝিতে কলকাতার দুর্গাপুরের বিমানবন্দরে ছবিটির দৃশ্যধারণ শুরু করবেন। সেখানেই টানা ছবিটির দৃশ্যধারণ শেষ হবে। আর চলতি বছরের ৩ ডিসেম্বর ছবিটির মুক্তি দেওয়া হবে। কারণ ১৯৭১ সালের এই দিনেই বিমান ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছিল।