২০১৯ সালের ডিসেম্বরে নেপালে অনুষ্ঠিত সাউথ এশিয়ান গেমসে অংশ নিয়েছিলেন শুটার আনজিলা আমজাদ। খুব বেশিদিন হয়নি শুটিংয়ে তার শুরুটা। তবে অল্পদিনেই নিজেকে অনন্য উচ্চতায় তুলে নিয়েছেন বাংলাদেশ আর্মি শুটিং অ্যাসোসিয়েশনের এ শুটার। বঙ্গবন্ধু নবম বাংলাদেশ গেমসের মাধ্যমে শুটিং পেল নতুন রানী। নিজের শুটিং ক্যারিয়ারে প্রথম স্বর্ণ জিতেছেন আনজিলা। প্রথমবার সিনিয়র ইভেন্টে এসেই পেলেন সাফল্য। গতকাল গুলশান শুটিং রেঞ্জে মেয়েদের ১০ মিটার এয়ার পিস্তলের সিনিয়র বিভাগে আনজিলা ৫৬৯ স্কোর করেন। নেভি শুটিং ক্লাবের আরমিন আশা ৫৬৩ স্কোর নিয়ে রৌপ্য জিতেছেন। ব্রোঞ্জ জেতা কুষ্টিয়া রাইফেল ক্লাবের আরদিনা আঁখির স্কোর ৫৬২।
এর আগে শুটিং ক্যারিয়ারে আনজিলার সেরা সাফল্য ছিল রৌপ্য। বাংলাদেশ গেমসের মতো বড় আসরে স্বর্ণ জয়ে উচ্ছ্বসিত অনার্স দ্বিতীয় বর্ষে পড়ূয়া এ শুটার, 'জীবনের প্রথম স্বর্ণ জিতেছি ভাবতেই ভালো লাগছে। নিজের ওপর বিশ্বাস ছিল যে পারব। স্কোর আরেকটু ভালো হবে আশা করেছিলাম। তার পরও যা করতে পেরেছি তাতেই আমি খুশি।' ১০ মিটার এয়ার পিস্তল মহিলা জুনিয়র ইভেন্টে স্বর্ণ জিতেছেন নেভি শুটিং ক্লাবের তুরিং দেওয়ান। ৫৪৮ স্কোর করে নেভি শুটিং ক্লাবকে স্বর্ণ এনে দিয়েছেন এই শুটার। ১০ মিটার এয়ার পিস্তল ইভেন্টে আর্মি শুটিং অ্যাসোসিয়েশনের সাব্বির আলম ৫৬৩ স্কোর করে স্বর্ণ জিতেছেন। দক্ষিণ এশিয়ান গেমসের স্বর্ণজয়ী ও কমনওয়েলথ গেমসে রৌপ্য জয়ী শুটার শাকিল আহমেদকে ব্রোঞ্জ পদক নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হচ্ছে। তার স্কোর হলো ৫৫৮।

মন্তব্য করুন