স্পষ্ট কথা বলায় বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াতের আলাদা পরিচিতি আছে। রাজনৈতিক বিষয় থেকে শুরু সিনেমা জগতের অনেক কিছু নিয়েই তিনি সমালোচনা করেন। বিশেষ করে নারীদের ব্যাপারে কঙ্গনা সব সময়ই সোচ্চার। সম্প্রতি তিনি বলিউড অভিনেত্রীরা কীভাবে বর্ণ বৈষম্যের শিকার হচ্ছেন তা নিয়ে কথা বলেছেন।

ভারতীয় গণমাধ্যম 'টাইমস অব ইন্ডিয়া'র এক সাক্ষাৎকারে কঙ্গনা জানান, গায়ের রং ফর্সা হওয়ার কারণে পরিচালকরা তাকে অনেক সুযোগ দিতে চেয়েছেন অনেক সময়। কিন্তু তিনি সেসব প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন। কারণ তিনি নিজের চেষ্টায় প্রতিষ্ঠিত হতে চেয়েছেন। তার ভাষায়, গায়ের রঙের কারণে অনেক বলিউড অভিনেত্রী সব সময় ভালো কাজের সুযোগ পান না। তাদেরকে দ্বিতীয় শ্রেণির নাগরিক মনে করা হয়।

কঙ্গনার কথায়, তিনি যখন বলিউডে পা রাখেন তখন গায়ের রঙের কারণে পরিচালক-প্রযোজকরা তাকে সুন্দরী হিসেবে কাজে নিতে চাইতেন। কঙ্গনা বলেন, তাদেরকে বোঝাতে চেয়েছি নিজের উজ্জ্বল গায়ের রঙ, সৌন্দর্য্যটুকুই শুধু আমার মূলধন নয়। এর বাইরেও আমার গুণ রয়েছে। তবে এবারই প্রথম নয়। এর আগেও 'ফর্সা রং মানেই সুন্দরী' এই ধারণার বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছেন কঙ্গনা।এ কারণে মোটা টাকার প্রস্তাব পেলেও কোনো ফেয়ারনেস ক্রিমের বিজ্ঞাপনী প্রচারের মডেল হননি তিনি।

এই ব্যাপারে এক সংবাদমাধ্যমকে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে ক্যুইনখ্যাত কঙ্গনা বলেন, চলচ্চিত্র জগতের অনেকের কাছেই সৌন্দর্য্যের একমাত্র ব্যাখ্যা হচ্ছে গায়ের ধবধবে ফর্সা রং। আমি রীতিমতো পরিশ্রম করে আজ ক্যারিয়ারের এই জায়গায় এসে পৌঁছেছি।

ভার ভাষায়, যদি অন্যদের প্রস্তাব শুনতেন তাহলে হয়তো ক্যারিয়ার শুরুর তিন-চার বছরের মধ্যেই কোনো রকম ঝুঁকি ছাড়াই একটা জায়গা তৈরি করতে পারতেন।

কঙ্গনা বলেন, সবাইকে বোঝাতে চেয়েছিলাম আমি সৌন্দর্য্যসর্বস্ব নই। আর তাছাড়া নিজের আমার গায়ের রঙ মোটেই পছন্দের নয় আমার। বলতে পারেন অন্যতম অপছন্দের।

মন্তব্য করুন