বলিউডের কন্ট্রোভার্সি কুইন হিসেবে পরিচিত কঙ্গনা রানাউত। অভিনয়ের চেয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশি আলোচিত এই অভিনেত্রী। বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন বিষয়ে 'উস্কানিমূলক' কথা বলে সমালোচনার জন্ম দেন তিনি।

তবে এবার 'উস্কানিমূলক' টুইটের কারণে কঙ্গনা রানাউতের টুইটার অ্যাকাউন্টটি ‘স্থগিত’ করা হয়েছে বলে খবর দিয়েছে খবর বিবিসি।

কঙ্গনার অ্যাকাউন্ট স্থগিতের বিষয়ে টুইটারের মুখপাত্র বলেছেন, ‘কোনো সন্দেহ নেই যে, ক্ষয়ক্ষতির সৃষ্টি করতে পারে, টুইটারের এমন যেকোনো ব্যবহার আমরা শক্ত হাতে নিয়ন্ত্রণ করি। উল্লিখিত অ্যাকাউন্টটি স্থগিত করা হয়েছে।’

তবে এবারই প্রথম নয়, এর আগেও কঙ্গনার টুইটার অ্যাকাউন্ট স্থগিত করা হয়েছিল। ওয়েব সিরিজ ‘তাণ্ডব’ নিয়ে প্ররোচনামূলক টুইট করেছিলেন তিনি। এ কারণে কয়েক ঘণ্টার জন্য বন্ধ করা হয়েছিল তার অ্যাকাউন্ট।

পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেস বিজয়ী হওয়ার পরই একের পর এক টুইট করতে থাকেন বিজেপির সমর্থক কঙ্গনা। তৃণমূলের এই বিজয়ের পেছনে সবচেয়ে বড় শক্তি হিসেবে বাংলাদেশি ও রোহিঙ্গাদের কথা উল্লেখ করেন কঙ্গনা।

টুইটারে এক পোস্টে তিনি লেখেন, ‘বাংলাদেশি আর রোহিঙ্গারা মমতার সবচেয়ে বড় শক্তি, যা চলছে, তাতে হিন্দুরা আর সেখানে সংখ্যাগরিষ্ঠ নয়। তথ্য অনুযায়ী, ভারতে বাঙালি মুসলিমরা বেশি দরিদ্র্য আর সবচেয়ে দূরাবস্থায় জীবন যাপন করে। ভালো, আরেকটি কাশ্মির তৈরি হচ্ছে।’