একেক মানুষের কষ্ট একেক রকম। কষ্ট ছাড়া মানুষ খুঁজে পাওয়াও কঠিন কাজ। তেমনি এক কষ্টের মানুষ অপূর্ব।সারা নামক একটি মেয়েকে ভালোবেসেছিল মন উজাড় করে। সেই সারায় অপূর্বকে বিয়ে না করে বিয়ে করে জাহিদকে। কারণ, সারার বাবা হার্টের রোগী। সারা বাবাকে বাঁচাতে ভালোবাসাকে কোরবানি দেয়। অপূর্ব সারার ভালোবাসা না পেয়েও সারার জন্য একটি জাদুঘর নির্মাণ করেন। সেই জাদুঘর পৃথিবীতে প্রথম চিন্তাধারার। সারা দুনিয়ায় বিভিন্ন পার্ক, বিনোদনমূলক জায়গা, চিরিয়াখানা, সমুদ্রবিচ সব পর্যটনমূলক স্থাপনায় সবাই আনন্দ করতে, ঘুরতে যায়। কিন্তু প্রাণভরে কষ্ট-বেদনা ও কান্নার কোনো স্থাপনা নেই। যেখানে গিয়ে মানুষ দুঃখ-বেদনা-কষ্ট ভুলে যাবে। অপূর্ব এমনি একটি জাদুঘর নিমার্ণ করেন। সারা দুনিয়ায় হৈচৈ পরে যায় এতে। এভাবেই এগিয়ে যায় গল্প।

কীভাবে কষ্টের কাছে হেরে যায় মানুষ; এমনই সব মানুষদের গল্পে নির্মিত হয়েছে টেলিছবি ‘জাদুঘরের নাম কষ্ট ’। কথাসাহিত্যিক ও দৈনিক সমকলের সাংবাদিক ইজাজ আহ্মেদ মিলন লিখেছেন ভিন্নিধর্মী চমৎকার এ গল্প।  এই গল্প অবলম্বনে পাঠক প্রিয় কবি ও নাট্যকার মিজানুর রহমান বেলালের চিত্রনাট্যে ‘জাদুঘরের নাম কষ্ট’ টেলিছবি নির্মাণ করেছেন জনপ্রিয় নির্মাতা আদিত্য জনি। প্রযোজনা করেছেন পুলক প্রাঙ্গণ।

বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন অপূর্ব চরিত্রে আব্দুন নুর সজল, সারা চরিত্রে হিমি, জাহিদ চরিত্রে মারজুক রাসেল। এছাড়া অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন মিথিলা, রতন, শায়মা রুশো, আনোয়ার, শোরমী,রুশ খান,পারভীন আকতার প্রমুখ। লাক্স মাঝদুপুরের টেলিছবি ‘জাদুঘরের নাম কষ্ট’ প্রচার হবে ৫ মে, বুধবার দুপুর ২টা ৩০ মিনিটে প্রচার হবে চ্যানেল আইয়ের পর্দায়।



মন্তব্য করুন