ভারতের জনপ্রিয় টেলিভিশন অভিনেত্রী মুনমুন দত্তকে গ্রেপ্তারের দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে ঝড় উঠেছে। সোমবার থেকেই হঠাৎ টুইটারে ট্রেন্ডিংয়ে উঠে আসে #ArrestMunmunDutta। 

জানা গেছে, জনপ্রিয় ধারাবাহিক 'তারক মেহতা কা উল্টা চশমা'-র ববিতাজি চরিত্রে অভিনয় করা মুনমুন দত্তের  পোস্ট করা একটি ভিডিও নিয়ে এই ঘটনার শুরু। মেকআপ টিউটোরিয়াল দিতে গিয়ে এই অভিনেত্রী বলেন, 'আমি এবার ইউটিউব চ্যানেলে নিজেকে ভালো দেখাতে চাই। নিজেকে 'ভঙ্গি'র (Bhangi) মতো লাগুক তা চাই না।' আর এরপরই তাকে নিয়ে আগুনের মতো বিতর্ক ছড়িয়ে পড়ে। 

জিনিউজ জানিয়েছে, ভারতে 'ভঙ্গি' শব্দ আসলে খুবই অবমাননাকর। প্রাচীনকালে পরিচ্ছন্নকর্মীদের এই নামে ডাকা হত। দলিত সম্প্রদায়ের কাছে এই শব্দের ব্যবহার অপমানকর। এমনকী দেশটির সুপ্রিম কোর্টের বিধান অনুযায়ী এটি শাস্তিযোগ্য অপরাধ। তাই মুনমুনের ভিডিওতে বর্ণবিদ্বেষের আঁচ পেয়ে চটেছেন নেটিজেনরা। 

মুনমুন দত্ত

এদিকে ভিডিওটি নিয়ে সমালোচনার ঝড় ওঠার পর অবস্থা বেগতিক বুঝে ক্ষমা চেয়ে এই অভিনেত্রী লেখেন টুইটারে লিখেছেন, 'গতকাল আমার পোস্ট করা ভিডিওতে একটি শব্দকে ভুলভাবে ব্যাখা করা হচ্ছে। আমি কোনওদিনই কাউকে অপমান করা, নীচু দেখানো বা কারো ভাবাবেগে আঘাত দেওয়ার ইচ্ছা নিয়ে ওই কথা বলিনি। ওই শব্দটির প্রকৃত অর্থ জানতাম না। আমি যখনই সেটির অর্থ জানতে পারি, ওই অংশটি আমি ভিডিও থেকে সরিয়ে দিই। প্রত্যেক জাতি, বর্ণ, লিঙ্গের মানুষের প্রতি আমার সমান শ্রদ্ধা রয়েছে, তারা সকলে মিলে আমাদের সমাজ ও দেশকে গড়ে তুলছে।'

তবে তাতেও ক্ষোভ মেটেনি নেটিজেনদের। মুনমুনের বিরুদ্ধে মুম্বাই পুলিশকে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন তারা।

বিষয় : মুনমুন দত্ত টুইটার

মন্তব্য করুন