সিজোফ্রেনিয়া একটি জটিল মানসিক রোগ। এ রোগের লক্ষণ হচ্ছে– চিন্তাধারা এবং অনুভূতি প্রকাশের মধ্যে সঙ্গতি না থাকা। পরিবারের কেউ বা পরিচিতজনরা তার খাবারে বিষ মিশিয়ে দিচ্ছে– এমন সন্দেহ করে থাকেন এই রোগীরা। এ ছাড়া আরও অমূলক সন্দেহ করে থাকেন তারা। এ ধরনের রোগীদের নিয়ে সাধারণত পরিবারের লোকেরা খুব সমস্যায় পড়ে যান। রোগীর অদ্ভুত আচরণগুলো মানিয়ে নিতে বেশ কঠিন হয়ে পড়ে।

এই সিজোফ্রেনিয়া রোগে আক্রান্ত এক তরুণের গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে নাটক 'অন্তর্জলী যাত্রা'। যেখানে দেখা যাবে শৈশবের একটি মর্মান্তিক ঘটনা থেকে সিজোফ্রনিয়া রোগে বাসা বাধে সাজ্জাদের শরীরে। যার প্রেক্ষিতে সে প্রায়ই আশপাশের মানুষগুলোকে মাঝে অতীতের ছায়া খুঁজে পায়। স্মৃতির অতলে প্রেমিকা মিথিলাকেও দেখতে পায় এক শিশুর মায়ের রূপে। একটি রোগ কীভাবে একটি তরুণকে একই সময়ে দুই ভুবনে বাসিন্দা করে তোলে, সেটাই নানা ঘটনার মধ্য দিয়ে নাটকে তুলে ধরা হয়েছে।

নাকটি রচনা ও পরিচালনা করেছেন রাকেশ বসু। প্রধান দুই চরিত্রে অভিনয় করেছেন রাফিয়াত রশিদ মিথিলা ও ইরফান সাজ্জাদ। সম্প্রতি রাজধানীর বিভিন্নস্থানে নাটকের দৃশ্যধারণ করা হয়েছে। আসছে ঈদে একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে নাটকটি প্রচার হবে বলে নির্মিতা রাকেশ বসু জানান।

নাটক নিয়ে তিনি বলেন, 'এবার একটি ভিন্ন ধাচের গল্প নিয়ে কাজ করেছি, যেখানে বাস্তব ও কল্পনার সমন্বয় ঘটেছে একটু আলাদা ভাবে। মিথিলা ও ইরফার দু'জনেই চেষ্টা করেছেন নিজেদের সেরা অভিনয় তুলে ধরার। আশা করছি, নাটকটি দর্শকের মাঝে সাড়া ফেলবে।'

মন্তব্য করুন