ঢাকাই ছবির আলোচিত নায়িকা পরীমণি তাকে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন। রোববার সন্ধ্যায় নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে এ অভিযোগ করেন তিনি। পরীমণি এর প্রতিকার চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা চেয়েছেন।

এ বিষয়ে পরীমণি কান্নাজড়িত কণ্ঠে সমকালকে বলেন, ‌'ভাই আমি বিপদে আছি। সামনাসামনি সব বলব। আমাকে বাঁচান। আমি এর বিচার চাই।'

এর আগে স্ট্যাটাসে তিনি বলেন, আমি শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছি। আমাকে রেপ এবং হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। আমি এর বিচার চাই।

প্রধানমন্ত্রী বরাবর এ স্ট্যাটাসে পরীমণি বলেন, এ বিচার কই চাইব আমি? কোথায় চাইব? কে করবে সঠিক বিচার? আমি খোঁজে পাইনি গত চারদিন ধরে। থানা থেকে শুরু করে আমাদের চলচ্চিত্রবন্ধু বেনজির আহমেদ আইজিপি স্যার; আমি কাউকে পাইনি। এসময় প্রধানমন্ত্রীকে মা সম্বোধন করেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে পরীমণি বলেন, যাদের পেয়েছি, সবাই ঘটনার বিস্তারিত জেনে চুপ হয়ে যায় দেখেছি। আমি মেয়ে, আমি নায়িকা, তার আগে আমি মানুষ। আমি চুপ করে থাকতে পারি না। আজ আমার সঙ্গে যা হয়েছে, তা যদি আমি কেবল মেয়ে বলে, লোকে কী বলবে, এসব মেনে নিয়ে চুপ হয়ে যাই, তাহলে আমি অনেকের মতো হব হয়ত।

প্রধানমন্ত্রীকে এ অভিনেত্রী বলেন, আমি তাদের মতো চুপ কী করে থাকতে পারি মা? আমি তো আপনাকে দেখিনি চুপ থেকে কোনো অন্যায় মেনে নিতে। আমার মা যখন মারা যান, তখন আমার বয়স আড়াই বছর। এতদিনে কখনও আমার এক মুহূর্ত মাকে খুব দরকার, এমন মনে হয়নি। আজ মনে হচ্ছে ,ভীষণ রকম মনে হচ্ছে মাকে দরকার।

পরিমণী আরও বলেন, আমার এখন আপনাকে (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) দরকার মা। আমার বেঁচে থাকার জন্যে আপনাকে খুব দরকার মা। আমি বাচঁতে চাই, আমাকে বাঁচিয়ে নাও মা।

নড়াইলের মেয়ে পরীমণির ঢাকার চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে ২০১৫ সালে। এরপর এ পর্যন্ত প্রায় দুই ডজন চলচ্চিত্রে নায়িকা চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি।

পরীমণির স্ট্যাটাসের স্ক্রিনশট: