প্রায় এক যুগ ধরে রুপালি পর্দায় অনুপস্থিত নব্বইয়ের দশকের নন্দিত নায়িকা শাবনূর। দীর্ঘদিন তিনি বসবাস করছেন অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে। সামাজিক মাধ্যমে হঠাৎ সরব এ অভিনেত্রী। খুলেছেন ইউটিউব চ্যানেল। এসব বিষয়ে কথা হয় তার সঙ্গে-

সামাজিক মাধ্যমে প্রায়ই আপনাকে দেখা যায়। কোন চিন্তা থেকে এ মাধ্যমে সক্রিয় থাকার সিদ্ধান্ত নিলেন?

দেখুন, সবাই কমবেশি সামাজিক মাধ্যমে সরব। এত দিন এ মাধ্যমে ছিলাম না বলে অনেকে প্রশ্ন করেছেন- আমি কেন এখানে নেই। প্রায়ই তারা আমার আপডেট জানতে চাইতেন। এসব কারণেই ভক্তদের কাছাকাছি থাকতে অফিসিয়াল ফেসবুক পেজও করেছি, ইনস্টাগ্রামেও আছি। খুলেছি ইউটিউব চ্যানেল। এখন ভক্তরা আমার সবকিছুর আপডেট পাচ্ছেন। গত শুক্রবার প্রথম ফেসবুক লাইভে এসেছিলাম।

কেমন সময় কেটেছে?

ভালোই কেটেছে সময়। ভক্তদের থেকে দূরে থাকা অসম্ভব। মূলত তাদের সঙ্গে দূরত্ব ঘোচাতেই লাইভে হাজির হলাম। ভক্তরা শাবনূরকে ভুলে যাননি- লাইভে আবারও প্রমাণ করেছেন তারা। মাঝেমধ্যে এমন আড্ডা আরও দিতে চাই।

আপনার নামে একাধিক আইডি রয়েছে। এটা আপনাকে কতটা বিব্রতকর পরিস্থিতির মুখোমুখি করে?

বিষয়টি নিয়ে আমি খুব বিরক্ত। দীর্ঘদিন শুনে আসছি, আমার নামে ফেসবুকে অনেকেই বিভিন্ন নামে আইডি খুলেছেন। আমার নাম ভাঙিয়ে অর্থনৈতিক সুবিধা আদায়সহ নানা ধরনের অনৈতিক কাজ করছেন। এমনকি ইউটিউব চ্যানেল চালুর পর সেখানে আপলোড করা ভিডিও পোস্ট করে কপিরাইট করে নিচ্ছে তাদের মাধ্যমগুলো। আমার চ্যানেলের ভিডিও নিয়ে উল্টো আমাকে কপিরাইট ক্লেম দিচ্ছে! এসব অসাধু ব্যক্তিকে সতর্কবার্তা দিয়েছি লাইভে। প্রথমবার সাবধান করেছি। না শোধরালে শিগগিরই আমি আইনি পদক্ষেপ নেব।

ইউটিউব চ্যানেল নিয়ে পরিকল্পনার কথা বলুন।

'শাবনূর' নামে এ চ্যানেলটি নিয়ে অনেক স্বপ্ন। তিন সদস্যের ছোট্ট টিমের মাধ্যমে ধাপে ধাপে তা বাস্তবায়নের চেষ্টা করছি। এরই মধ্যে কয়েকটি ভিডিও দেখে দর্শকরা তাদের ভালো লাগার কথা জানিয়েছেন। ভক্তদের জন্য একটা চমক রয়েছে। খুব শিগগির জীবনের ডায়েরি ইউটিউবে আপলোড করব। পাশাপাশি মজার ও রুচিশীল কনটেন্টও থাকবে।

দীর্ঘদিন পর্দায় আপনার উপস্থিতি নেই। কাজে ফেরার বিষয়ে কী ভাবছেন?

জীবনের লম্বা সময় অভিনয়ের মধ্য দিয়ে কেটে গেছে; তা কি চিরতরে ছেড়ে দেওয়া যায়? আমিও অভিনয়ে ফিরতে চেয়েছি সব সময়। ভালো গল্প ও চরিত্র পেলে অবশ্যই সিনেমায় অভিনয় করতে চাই। কিন্তু সে রকম সিনেমা নিয়ে কেউ এগিয়ে আসছেন না। ভক্তদের কারণেই আমি শাবনূর। তারা আমাকে ভালোবাসেন বলে প্রায়ই অভিনয়ের জন্য অনুরোধ করনে। ভক্তদের প্রতি আমার কৃতজ্ঞতার শেষ নেই। আমাদের জীবনটা একটু অন্য রকম। আমাদের কারও না কারও অশান্তি আছে, দুঃখবোধ আছে। অনেকেই বিপর্যস্ত। এই জীবনে সবাই একটু বিনোদন চান। আমি তো শিল্পী। বাণিজ্যিক ও বিকল্পধারার সিনেমার বিভাজন করি না। আমি সব ধরনের সিনেমায় কাজ করতে চাই।