'নিজের দেশ থেকে আরেক দেশে শুটিং করতে এলাম। কিন্তু মনে হচ্ছে না অন্য দেশে এসেছি। একই ভাষা, একই রকম মানুষ, একই রকম মানুষের আচরণ। পার্থক্য শুধু দেশের নামে। ঢাকায় এয়ারপোর্টে নামার পর বেশিক্ষণ সেখানে থাকা হয়নি। যেখানে শুটিং সেখানে চলে এসেছি। জায়গাটার নাম চাঁদপুর। এখানকার ইলিশ আমাদের কলকাতায় খুবই বিখ্যাত। আসার সময় বাবাও বলে দিয়েছে ফেরার সময় যেনো এখনকার ইলিশ নিয়ে ফিরি। তাই ফেরার সময় চাঁদপুরের ইলিশ নিয়েই কলকাতায় ফিরবো'- বলছিলেন কলকাতার নায়িকা কৌশানি মুখোপাধ্যায়। 

‌‌‌‘পিয়া রে’ নামের একটি ছবির শুটিংয়ে অংশ নিতে সোমবার ঢাকায় আসেন তিনি। ঢাকায় প্লেন থেকে নামার কিছুক্ষণ পরই চলে গেছেন ‘পিয়া রে’ ছবির শুটিংয়ে চাঁদপুরে। সোমবার রাতে কথা হয় সমকালের সঙ্গে। তখনই চাঁদপুরের ইলিশ নিয়ে কলকাতায় ফেরার কথা জানান কৌশানি। 

এ সময় কৌশানি আরও বলেন, 'বাংলাদেশে যেহেতু আসা হয়েছে, তাই কাজের ফাঁকে সময় করে এখানকার কিছু জায়গা ঘুরে দেখবো। বাংলাদেশের সৌন্দর্য উপভোগ করতে চাই। কালই এখনকার টাটকা ইলিশ মাছের স্বাদ নেবো।'  

'প্রিয়া রে' ছবিটি পরিচালনা করছেন পূজন মজুমদার। আজ থেকে পুরোদমে চলবে শুটিং। এতে কৌশানির  বিপরীতে আছেন শান্ত খান। ছবিতে কলকাতার রজতাভ দত্ত ও খরাজ মুখার্জিও থাকছেন। আরও আছেন বাংলাদেশের একঝাঁক অভিনেতা। চাঁদপুরে টানা ছবির কাজ চলবে বলে জানিয়েছেন পরিচালক। কৌশানি ১৫ দিনের মতো থাকবেন এখানে ।

পরিচালক পূজন বলেন, ‌'আজ শুটিং শুরু হচ্ছে। ঢাকায় নামার পর রাতেই চাঁদপুর এসে পৌচেছেন কৌশানি। আমরা টানা শুটিং করে ছবিটি দ্রুত শেষ করতে চাই। আমার প্রথম ছবিটি এটি। তাই সবার কাছে দোয়া প্রার্থনা করছি।'

এর আগে শাপলা মিডিয়া ইন্টারন্যাশনালের প্রযোজনায় শামীম আহমেদ রনির পরিচালনায় ‘লাগ ভেলকি লাগ’ ও ‘ছুটি’ সিনেমায় অভিনয় করেছেন কৌশানি। তার বিপরীতে কাজ করেছেন কলকাতার নায়ক বনি সেনগুপ্ত। প্রযোজনা বাংলাদেশের হলেও ছবিগুলো কলকাতার প্রজেক্ট হিসেবেই নির্মিত হয়েছে। এই প্রথম কৌশানি সরাসরি বাংলাদেশের ছবিতে অভিনয় করছেন।