অভিনেতা, নির্দেশক, নাট্যকার, শিক্ষক ড. ইনামুল হক আর নেই। প্রিয় বন্ধুর মৃত্যু খবরে  ভেঙে পড়েছেন কিংবদন্তি অভিনেতা আবুল হায়াত।  প্রিয় বন্ধুকে হারিয়ে সোমবার সন্ধ্যায় সমকালকে তিনি বলেন, 'ইনামুলের সঙ্গে আমার ৫০ বছরের বন্ধুত্ব। তার চলে যাওয়ার খবর আমাকে কতটা কষ্ঠ দিচ্ছে তা ভাষায় প্রকাশ করতে পারবো না।' 

প্রিয়ববন্ধুর মৃত্যু নিয়ে যখন কথা বলছিলেন মোবাইলের ওই পাশে কাঁদছিলেন আবুল হায়াত। সেই কান্না বিজরিত কণ্ঠে বললেন, ‌‌‌'ইনামুলকে নিয়ে আমি এখন কিছু বলার মতো অবস্থায় নেই। শুধু বলবো আমি দীর্ঘদিনের বন্ধুকে হারালাম। সংস্কৃতি অঙ্গন হারালো উজ্জল এক নক্ষত্রকে।' 

সোমবার বিকালে রাজধানীর বেইলি রোডের নিজ বাসায় মারা গেছেন  ড. ইনামুল হক।  বর্ষিয়ান এই নাট্যজনের চির বিদায়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে সংস্কৃতি অঙ্গনে। 

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) সাবেক শিক্ষক ইনামুল হকের জন্ম ১৯৪৩ সালের ২৯ মে ফেনী সদর উপজেলার মোটবী ইউনিয়নে। তার বাবা ওবায়দুল হক ও মা রাজিয়া খাতুন।

ড. ইনামুল হকের পুরো পরিবারই বাংলা নাটকের সঙ্গে জড়িয়ে আছেন। তার দাম্পত্য সঙ্গী নাট্যজন লাকী ইনাম। তাদের সংসারে দুই মেয়ে হৃদি হক আর প্রৈতি হক। দুই জামাতা অভিনেতা লিটু আনাম ও সাজু খাদেম।

ফেনী পাইলট হাইস্কুল থেকে এসএসসি, ঢাকার নটর ডেম কলেজ থেকে এইচএসসি এবং পরবর্তী সময়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে রসায়ন বিভাগ থেকে তিনি বিএসসি ও এমএসসি সম্পন্ন করেন। পরে ম্যানচেস্টার ইউনিভার্সিটি থেকে পিএইচডি লাভ করেন।