বলিউড অভিনেত্রী মনীষা কৈরালা ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছিলেন। দীর্ঘ চিকিৎসার পর ভালো আছেন এ অভিনেত্রী। গত রোববার ছিল ভারতের জাতীয় ক্যান্সার সচেতনতা দিবস। দিনটিতে সামাজিক মাধ্যমে মিডিয়ায় নিজের ক্যান্সারের চিকিৎসার সময়ের অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন এই বরেণ্য অভিনেত্রী। 

শুনিয়েছেন ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়াই করার গল্পও। এ অভিনেত্রী লেখেন, 'জাতীয় ক্যান্সার সচেতনতা দিবসে যারা ক্যান্সার চিকিৎসার এই জার্নির মধ্য দিয়ে যাচ্ছেন, সবার প্রতি অনেক ভালোবাসা। সবার সাফল্য কামনা করি। আমি জানি, এই যাত্রা কঠিন। কিন্তু এও জানি, আপনারা তার থেকেও বেশি কঠিন। আপনাদের প্রতি আমার শ্রদ্ধা রইল।' ক্যান্সার ধরা পড়ার পর চিকিৎসার সময় মানুষ হিসেবে নাকি অনেক বদলে গিয়েছিলেন তিনি।

সেসব নিয়ে তিনি বলেন, 'আমি ছোট ছোট জিনিসে আনন্দ খুঁজে পেতাম। ঘাসের ওপর হাঁটা, বিছানায় বসে জানালা দিয়ে আকাশ, মেঘ, সূর্যোদয়, সূর্যাস্ত দেখে মন ভালো হয়ে যেত। কারণ আগামীকাল বেঁচে থাকব কিনা, সেটা আমার জানা ছিল না। তাই সব সময় আনন্দে থাকার চেষ্টা করতাম। দুঃসহ পর্যায় পেরিয়ে গিয়েছি সাহসে ভর করে।' ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াইয়ের দিনগুলোতে পরিবারকে সব সময় পাশে পেয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন মনীষা। তাই ক্যান্সারের সঙ্গে যারা লড়াই করছেন, সবাইকে সাহসী হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

মনীষা আরও বলেন, 'ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার পর মৃত্যু আমার দুয়ারে কড়া নাড়ে। কিন্তু আমি মরতে চাইনি। আমি চোখ বন্ধ করেছিলাম, চোখ মেলে দেখি কালো হয়ে আসছে আমার আকাশ। সবকিছু যেন থমকে গেল। তবে অসহনীয় শারীরিক যাতনার মধ্যেও হাল ছাড়িনি। ঝাঁপিয়ে পড়লাম জীবনযুদ্ধে। একসময় জয়ী হয়েছি।'

নেপালি কন্যা মনীষা কৈরালা '১৯৪২ অ্যাল লাভ স্টোরি' ছবির মাধ্যমে বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে যাত্রা শুরু করেছিলেন। এরপর অসংখ্য চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। ২০১২ সালে তিনি ওভারিয়ান ক্যান্সারে আক্রান্ত হন। ২০১৫ সালে ক্যান্সার জয় করেন এই অভিনেত্রী।