বাগান করা অভিনেত্রী জয়া আহসানের অন্যতম শখ। যারা এই অভিনেত্রীর বিষয়ে খোঁজ খবর রাখেন তারা জানেন এই শখের কথা। নিজ বাসার ছাদ ও ব্যালকনিতে এই শখ পূরণ করছেন তিনি। জয়ার এই ছাদ বাগান ও বাসার ব্যালকনির চারপাশে প্রায় শতাধিক ফল ও সবজির গাছ রয়েছে। অভিনেত্রী জানিয়েছেন, করোনায় তার বেশির ভাগ সময় এই বাগানেই কেটেছে। নতুন গাছ লাগানো আর পরিচর্যা করে সময়টা উপভোগ্য করে তুলেছিলেন তিনি। 

এই ছাদ বাগানে সবজি ও ফলের বাম্পার ফলনের ছবি মাঝে মাঝেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করেছেন জয়া। করলেন আজও। শনিবার বেতের তৈরি ঝুরিভর্তি হলুদের ছবি পোস্ট করে জানালেন এবারও তার ছাদবাগানে হলুদের বাম্বার ফলন হয়েছে।  জিআই ব্যাগের ভেতরে মাটি ফেলে ইস্কাটনের বাসার ছাদে বাগানে এই হলুদ ফলিয়েছেন বলে জানালেন দুই বাংলার এই তারকা।

ছবির ক্যাপশনে লিখেছেন, সদ্য তোলা সোনালী রঙা হলুদের মনমোহিনী ঘ্রান…'

ইট কাঠের এই শহরে উঁচু উঁচু দালানের মধ্যে ছাদবাগান যেন জয়ার স্বস্তির আশ্রয়।  শুধু হলুদই নয়, এই বাগান থেকে বরবটি, ঢ্যাঁড়স, পুঁইশাকসহ আরও অনেক কিছুই তুলে খাচ্ছেন জয়া। ফলনও হচ্ছে প্রচুর। 

জয়া জানান, হলুদ ছাড়াও  থাই বেগুন, বরবটি, শিম, লেবু, মাল্টা, ডুমুর, বেদানা, বরই, পেয়ারা, সফেদা, বেরি, কামরাঙা ও ভেষজ নানা রকম গাছ রয়েছে তার বাগানে। রয়েছে বেশ কিছু বিদেশি সবজি, ফল ও ফুলগাছও। 

উপহার হিসেবে গাছ পেলে খুশি হন জয়া। এমনকি সুযোগ পেলে বিদেশ থেকেও গাছ নিয়ে আসেন তিনি।

এদিকে সম্প্রতি লন্ডন থেকে ফিরেছেন জয়া। মাকে নিয়ে লন্ডনে ঘুরিয়ে বেড়িয়েছেন এ অভিনেত্রী। ঢাকায় ফিরেই জানিয়েছেন  শিগগিরই একটা বিজ্ঞাপনচিত্রের শুটিং করবেন তিনি। এরপরই নতুন সিনেমার শুটিংয়ের মনোযোগী হবেন।