একটি অডিও ক্লিপ ভাইরাল হয়েছে এবং বলা হচ্ছে, ওই অডিও ক্লিপের কথোপকথন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান, চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি ও চিত্রনায়ক ইমনের। কথোপকথনের শুরু প্রতিমন্ত্রী ও ইমনের মধ্যে। পরে সেখানে যোগ করা হয় মাহিকে। 

এ বিষয়ে ইমন বলেন, ভাইরাল অডিও ক্লিপটি সঠিক। আমাদের অপর প্রান্তে ছিলেন প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান। তবে এ ঘটনা দেড় বছর আগের।

ইমন বলেন, আমরা একটি ছবির বিষয়ে মিটিং করছিলাম। তখন প্রতিমন্ত্রী ফোন দেন। তিনি কিন্তু প্রথমেই বলেছেন, ‘তুই ফোন ধরস নাই কেন?’ পরে উনিই আবার ফোন দেন। একজন মন্ত্রী বারবার ফোন দিচ্ছেন, আমি কিন্তু বলেছি, ‘হ্যাঁ, ভাই আসতেছি। দেখছি ভাই’। খারাপ কিছু কিন্তু বলিনি। একজন মন্ত্রীর সঙ্গে যেভাবে কথা বলা দরকার, সেভাবেই বলার চেষ্টা করেছি। আমি কিন্তু বারবার বলেছি, ‘দুই মিনিট ভাইয়া, নামছি।'

ইমন আরও বলেন, 'আমি কোনো নায়িকাকে নিয়ে এভাবে যাব কেন? এমন কোনো অভিযোগও কেউ করতে পারবে না। আমি মাহিকে নিয়ে গেছি- এমন কোনো কথা সেখানে নেই। আমি কিন্তু যাইনি, দুই মিনিট দুই মিনিট বলেছি, দুই মিনিটে কি যাওয়া যায়! আমি শুধু প্রতিমন্ত্রীকে সামাল দেওয়ার চেষ্টা করেছি।'

ইমন আরও বলেন, 'মাহিকে যে এভাবে অশ্লীল ভাষায় কথা বলেছেন প্রতিমন্ত্রী, এটা আমি জানতাম না। মাহির হাতে ফোনটা দিয়ে আমি তখন ডিরেক্টরের সঙ্গে স্ক্রিপ্ট নিয়ে কথা বলছিলাম। প্রতিমন্ত্রীর ফোনটি আমার নম্বরে এলেও আমার সেটে রেকর্ডিং অপশন নেই। আর মাহিও বিষয়টি নিয়ে আমার সঙ্গে সেভাবে আলোচনা করেনি।'

এ বিষয়ে অনেক চেষ্টা করেও প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসানের বক্তব্য জানা সম্ভব হয়নি।

নায়িকা মাহির সঙ্গেও যোগাযোগ করা যায়নি। তার মোবাইল নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। তিনি সৌদি আরবে স্বামীসহ ওমরাহ পালন করতে গেছেন বলে জানা গেছে।