আলোচিত ই-কামর্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির প্রতারণাকাণ্ডে অভিনেত্রী রাফিয়াত রশিদ মিথিলার বিরুদ্ধে যে মামলা করা হয়েছে তার কোনো ভিত্তি নেই বলে দাবি করেছেন তিনি। 

সোমবার সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে যে মামলাটি করা হয়েছে, সেটার ভিত্তি নেই। ভিত স্ট্রং না দেখেই কিন্তু আমাকে  জামিন দেওয়া হয়েছে। আমার আইনের ওপর আস্থা আছে। আশা করছি এসব কারণে শিল্পীরা আর হয়রানির শিকার হবেন না। শুধু এখন নয়, ভবিষ্যতেও।’

গেল ৪ ডিসেম্বর তাহসান খান, মিথিলা ও শবনম ফারিয়াসহ নয় জনের বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা করেন সাদ স্যাম রহমান নামে ইভ্যালির এক গ্রাহক। ইভ্যালির প্রতারণামূলক কর্মকাণ্ডে সহযোগিতা ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে মামলা করেন তিনি।

এই মামলায় হাইকোর্ট থেকে আগাম জামিন পাওয়ার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় মিথিলা ওই দাবি করেন। 

আদালত চত্তরে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন মিথিলা। কোন বিশ্বাসে ইভ্যালিতে যুক্ত হয়েছিলেন- এমন প্রশ্নে মিথিলা বলেন, ‘আমি যখন ইভ্যালিতে যুক্ত হয়েছি, তার আগেই সেই প্রতিষ্ঠানের ৪০ লাখ গ্রাহক ছিল। সেই মানুষগুলো যেভাবে আস্থা রেখেছে, আমিও তো সেভাবেই আস্থা রেখেছি।’ এসময় হয়রানিমূলক কর্মকাণ্ড থেকে শিক্ষা পেয়েছেন বলেও জানান মিথিলা।

সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘এই অসম্ভব হয়রানির ভেতর দিয়ে গিয়ে আমি যেটা শিখলাম, আমাদের আর্টিস্টদের সাপোর্ট করার জন্য সেভাবে আইনজীবী নেই। মিডিয়ার এসব ইস্যু ডিল করার জন্য প্রপার এজেন্সি নেই, আমাদের ম্যানেজার নেই। এগুলো আমাদের ইনডিভ্যিজুয়ালি ডিল করতে হয়। এগুলোর জন্য আমি প্রস্তুত ছিলাম না। আমি একশ'র ওপর ব্র‌্যান্ড এনডোর্স করেছি, যেগুলো অনেক বড় বড় ব্র‌্যান্ড বাংলাদেশের। এই ধরনের একটা হয়রানিমূলক পরিস্থিতির জন্য আমি একেবারেই প্রস্তুত ছিলাম না।’