দক্ষিণী তারকা নাগা চৈতন্য ও সামান্থা রুথ প্রভু সংসার এখন অতীত।  গত অক্টোবরে দাম্পত্য জীবনের ইতি টেনেছেন তারা। এক যৌথ বিবৃতিতে সোশ্যাল মিডিয়ায় তাদের বিচ্ছেদের ঘোষণা দেন তারকারা। এতে লেখা ছিল, আমাদের সকল শুভাকাঙ্খীদের জন্য। অনেক চিন্তাভাবনা এবং চিন্তাভাবনার পর স্যাম এবং আমি স্বামী-স্ত্রী হিসাবে আমাদের নিজস্ব পথ অনুসরণ করার জন্য আলাদা হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমরা ভাগ্যবান যে এক দশকেরও বেশি সময় ধরে আমাদের বন্ধুত্ব ছিল। '

তবে বিচ্ছেদ হলেও বিচ্ছেদকারণ নিয়ে উভয়ের কেউ তেমন মুখ খুলেননি। 

এদিকে এই দুই তারকার ডিভোর্সের কারণ সম্পর্কে নানা গুঞ্জন শোনা গেছে। ভারতীয় একাধিখ গণমাধ্যশ জানায়, সামান্থা খোলামেলাভাবে পর্দায় হাজির হোক এটি নাকি চায়নি নাগার পরিবার। অন্যদিকে, এই অভিনেত্রী চাননি তার বিষয়ে কেউ হস্তক্ষেপ করুক। যদিও ডিভোর্সের প্রকৃত কারণ এখনো জানাননি নাগা ও সামান্থা।

সম্প্রতি প্রথমবারের মতো ডিভোর্স নিয়ে মুখ খুলেছেন নাগা। তিনি বলেন, ‘আসলে বিচ্ছেদ হওয়াটা কোনো খারাপ বিষয় নয়। ব্যক্তিগত সুখ-শান্তির জন্য এটা একটা সম্মিলিত সিদ্ধান্ত। সে খুশি, আমিও খুশি। তাই ডিভোর্স সেইসব পরিস্থিতিতে সেরা সিদ্ধান্ত।’

২০১০ সালে তেলেগু ভাষার ‘ইয়ে মায়া চেসাভ’ সিনেমায় একসঙ্গে অভিনয় করেন নাগা চৈতন্য ও সামান্থা। সিনেমার সেটেই তাদের প্রথম পরিচয়। তারপরই প্রেমের সম্পর্কে জড়ান তারা। এরপর লুকিয়ে দীর্ঘদিন প্রেম করেন এই জুটি। ২০১৭ সালের ৬ অক্টোবর বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন তারা। গত ২ অক্টোবর আনুষ্ঠানিকভাবে ডিভোর্সের ঘোষণা দেন নাগা ও সামান্থা।