'নোট দিয়ে ভোট কেনার দিন শেষ, এটা রাজ্জাক-কবরীর বাংলাদেশ'- এমন কথার গানে বিকেল থেকেই নেচে নেচে আনন্দ উল্লাসে ভোটের প্রচারণা চালাচ্ছিলেন চিত্রনায়ক রিয়াজ। সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে এফডিসির পরিচালক সমিতি সংলগ্ন ইলিয়াস কাঞ্চন-নিপুণ প্যানেলের নির্ধারিত স্থানে প্রচারণা চালাচ্ছিলেন তিনি।   

সন্ধ্যার পর সে প্রচারণায় যুক্ত হন শিল্পী সমিতির ভোটাধিকার হারানো ১৮৪ শিল্পীর কয়েকজন। 

সন্ধ্যায় চিত্রনায়ক রিয়াজ যখন নাচছিলেন এমন সময় তার বুকের কাছে চলে আসেন ষাটোর্ধ্ব একজন লোক। তিনি কান্নাজড়িত গলায় বলেন, 'আমার ভোট দেওয়ার অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে।'

রিয়াজ এ সময় তাকে জড়িয়ে ধরেন। তাকে বুকে জড়িয়ে কেঁদে ফেলেন। লোকটির সঙ্গে কথা বলার সময় রিয়াজ কান্নায় ভেঙে পড়েন। হাউমাউ করে কাঁদেন বাংলা ছবির জনপ্রিয় এ নায়ক। 

কাঁদতে কাঁদতে রিয়াজ বলেন, 'ভোটাধিকার হারানো এই মানুষগুলোর কান্না থামিয়ে মুখে হাসি ফিরিয়ে দিতে চাই। এই মানুষগুলোর মুখের দিকে তাকান। তাদের সাথে অন্যায় হয়েছে।'

রিয়াজের কান্নার সাথে সাথে সেখানে হট্টগোল শুরু হয়। ভোটাধিকার হারানো কমপক্ষে ৫০ জন শিল্পী রিয়াজের সাথে সাথে চিৎকার করে কান্না শুরু করেন।

রিয়াজ বলেন, ‘নোট দিয়ে ভোট কেনার দিন শেষ’ নামে একটি নির্বাচনী গান করেছি। গানটি ভোটাধিকার হারানো এক বৃদ্ধ শিল্পী শুনছিলেন আর কষ্ট পাচ্ছিলেন। তার সেই কষ্ট আমাকে আবেগতাড়িত করেছে। সেজন্য কান্না থামাতে পারিনি।'

ইলিয়াস কাঞ্চন-নিপুণ প্যানেল থেকে সহ-সভাপতি পদে লড়ছেন চিত্রনায়ক রিয়াজ। তার প্রতিদ্বন্দ্বী ডিপজল ও রুবেল।

২৮ জানুয়ারি এফডিসিতে শিল্পী সমিতির নির্বাচনে গত দুইবারের জয়ী প্যানেল মিশা-জায়েদের বিরুদ্ধে লড়বে ইলিয়াস কাঞ্চন-নিপুন এর প্যানেল।