তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, নারীদের সমান অংশগ্রহণ ছাড়া দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়। আর দেশের উন্নয়ন নিশ্চিত করতে নারীর মর্যাদা ও ক্ষমতায়নে অগ্রগামী শেখ হাসিনার সরকার। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীনতার পরই নারীর ক্ষমতায়নে উদ্যোগ নিয়েছিলেন। জাতীয় সংসদে নারী আসন সংরক্ষণ করেছিলেন। তা আরও এগিয়ে নিয়েছেন শেখ হাসিনা।

শুক্রবার নাটোরের গোল-ই-আফরোজ সরকারি কলেজ মাঠে বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগ সিংড়া উপজেলা ও পৌর শাখার ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী পলক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংসদে সংরক্ষিত নারী আসনের সংখ্যা বৃদ্ধি করেছেন। তিনি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নারীদের ৬০ শতাংশ চাকরির সুযোগ তৈরি করে দিয়েছেন। যুগান্তকারী এই পদক্ষেপে এইচএসসি পাস করে একজন নারী খুব সহজেই কর্মসংস্থানের সুযোগ পাচ্ছেন। ফলে যৌতুকের ব্যাধি থেকে মেয়েরা রক্ষা পেয়েছেন। তাদের পরিবার এখন মাথা উঁচু করে সমাজে বাস করছেন।

তিনি আরও বলেন, ১৯৯৬ সালে ক্ষমতা গ্রহণের পর শেখ হাসিনা প্রথমবারের মতো নারী বিচারপতিকে সুপ্রিম কোর্টে নিয়োগ দেন। আমাদের সরকার জাতীয় পরিচয়পত্রে বাবার পাশাপাশি মায়ের নাম সংযোজন করেছে। এভাবেই নারীর মর্যাদাকে সমুন্নত করেছেন শেখ হাসিনা।

সম্মেলনের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সাফিয়া খাতুন। সিংড়া উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগ সভাপতি শামীমা হক রোজী সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রত্না আহমেদ এমপি, বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শিরীন রুখসানা, পৌর মেয়র জান্নাতুল ফেরদৌস প্রমুখ।