মার্কিন সংগীতশিল্পী ব্রিটনি স্পিয়ার্স স্মৃতিকথা লিখছেন। সম্প্রতি মার্কিন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়। সোমবার রাতে ইনস্টাগ্রামে এক পোস্ট বিষয়টি জানিয়েছেন ব্রিটনি স্পিয়ার্স। খবর বিবিসি অনলাইনের।

ব্রিটনি বলেছেন, স্মৃতিকথায় তিনি জীবনের দুর্বিষহ ঘটনাগুলোর কথা লিখবেন, যা প্রকাশ্যে কখনো তিনি বলতে পারেননি। 

২০০৮ সালে ব্রিটনি স্পিয়ার্স যখন মানসিক অসুস্থতার ভেতর দিয়ে যাচ্ছিলেন, তখন তার ব্যক্তিগত জীবন ও সম্পদ নিয়ন্ত্রণের আইনি অধিকারের মালিক তার বাবা জেমি স্পিয়ার্সকে দেওয়া হয়েছিল। তখন তারা বাবা ব্রিটনির ব্যক্তিগত জীবনের নানা সিদ্ধান্তে হস্তক্ষেপ করেন বলে অভিযোগ করা হয়। এ ছাড়া ব্রিটনির ব্যক্তিগত জীবনে নানা রকম বিধিনিষেধ আরোপের অভিযোগও করেছিলেন বাবার বিরুদ্ধে। বিষয়টি আদালতে পর্যন্ত গিয়েছিল।

স্মৃতিকথাটি কবে প্রকাশ পাবে তা নিয়ে এখনও কিছু বলেননি ব্রিটনি। গেল ফেব্রুয়ারিতে পেজ সিক্স জানিয়েছিল, প্রকাশনা সংস্থা সাইমন অ্যান্ড শুস্টারের সঙ্গে ১৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের চুক্তি করেছেন ব্রিটনি। 

বইটিতে ব্রিটনি তার ঘটনাবহুল জীবনের নানা কথা লিখছেন। ২০১৭ সালে তার মেয়ের দুর্ঘটনার কথাও লিখছেন বইয়ে। এ ছাড়াও বাবা জেমি স্পিয়ার্সের অভিভাবকত্বে (কনজারভেটরশিপ) থাকার সময় তিনি যে কষ্টের ভেতর দিয়ে গিয়েছেন, তাও লিখছেন তিনি।