গতকাল মধ্যরাতে হুট করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস আসতে থাকে ‘চিত্রনায়ক ফারুক আর নেই’। কেউ কেউ ফারুকের মৃত্যুতে শোক ও আত্মার মাগফেরাত কামনা করেও স্ট্যাটাস দিতে থাকেন। অথচ এমন স্ট্যাটাসের সূত্র কি? কিছুই বলতে পারেনি তারা।

তাই মধ্যরাতেই  কিংবদন্তি অভিনেতা ও ঢাকা-১৭ আসনের এমপি আকবর হোসেন পাঠান ফারুকের স্ত্রী ফারহানা পাঠানকে বিষয়টি অবহিত করে মেসেজ পাঠানো হয়। সিঙ্গাপুর থেকে মেসেজের উত্তর আসে বাংলাদেশ সময় সকাল ১০টায়।  

সমকালকে তিনি জানান, আল্লাহর রহমতে আপনাদের মিয়া ভাই ভালো আছেন।  তার জন্য দোয়া করবেন।

দীর্ঘদিন ধরে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন নায়ক ফারুক। গত ২০২১ সালের ৪ মার্চ থেকে মাউন্ট এলিজাবেথে চিকিৎসাধীন ফারুকের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে বলে জানিয়েছে পরিবার।

তবে মাঝেই মাঝেই এই নায়কের মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়ে ফেসবুকে। গতকালও ছড়াল। কয়েকমাস পরপরই ফেসবুকে একশ্রেণীর মানুষ কিছু না জেনেই হুটহাট এমন গুজব ছড়িয়ে দেয়। অসুস্থ ফারুকের পরিবারকে এতে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হয় বলে জানালেন ফারুকের স্ত্রী। 

ফারহানা পাঠান বলেন, আমরা জানি ফারুককে নিয়ে আপনারও উৎকণ্ঠায় আছেন। তার সুস্থতা চান আপনারাও। তারপরও বলব, হুটহাট এমন খবর ছড়িয়ে আমাদের মানসিকভাবে বিপর্যস্ত করবেন না। আমরা কয়েক বছর ধরে একটা অস্বাভাবিক জীবন যাপনের মধ্য দিয়ে যাচ্ছি। আপনাদের কাছে দোয়া চাই। যেনো আপনাদের মিয়া ভাইকে নিয়ে দ্রুত দেশে ফিরতে পারি।

এইচ আকবর পরিচালিত 'জলছবি' চলচ্চিত্রের মাধ্যমে বড় পর্দায় আসেন ফারুক। অভিনয়ের জন্য ১৯৭৫ সালে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব-অভিনেতা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। ২০১৬ সালে চলচ্চিত্রে অসামান্য অবদানের জন্য তাকে আজীবন সম্মাননায় ভূষিত করা হয়।