প্লাস্টিক সার্জারি করাতে গিয়ে মাত্র ২১ বছর বয়সে প্রাণ হারালেন কন্নড় অভিনেত্রী চেতনা রাজ । সোমবার অস্ত্রোপচার পরবর্তী জটিলতায় মারা যান তিনি। এ ঘটনায় চিকিৎসকের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ এনেছেন অভিনেত্রীর মা ও বাবা।

হিন্দুস্তান টাইমসের খবর অনুযায়ী, মেদ ঝরানোর জন্য গত সোমবার বিকেলে পরিবারের কাউকে কিছু না জানিয়ে প্লাস্টিক সার্জারি করার জন্য বেঙ্গালুরুর শেট্টি’স কসমেটিক সেন্টারে যান চেতনা। কিন্তু সার্জারি করতে গিয়ে অভিনেত্রীর ফুসফুসে নানা ধরনের সমস্যা দেখা দেয়। পানি জমতে শুরু করে ফুসফুসে। এরপর তাড়াতাড়ি করে চেতনাকে সেন্টারের অ্যানাস্থেটিস্ট মেলভিন চেতনাকে কাদে হাসপাতালে নিয়ে যান। বলা হয়, চেতনা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন। এরপর প্রায় ৪৫ মিনিট ধরে চেষ্টা করেও চিকিৎসকরা চেতনাকে বাঁচাতে পারেননি। পুলিশি অভিযোগে আইসিইউ-র দায়িত্বে থাকা চিকিৎসক সন্দীপ বলেন, প্লাস্টিক সার্জারির সংস্থার কর্মীরা জানতেন যে, চেতনার মৃত্যু হয়েছে অনেক আগেই। তা সত্ত্বেও তাকে হুমকি দিতে থাকেন। কাদে হাসপাতালে পৌনে সাতটায় চেতনাকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়।

কন্নড় টেলিভশনের জগতে পরিচিত মুখ ছিলেন চেতনা। ‘গীতা’, ‘দোরাসনি’র মতো ধারাবাহিকে অভিনয় করে প্রশংসিত হন তিনি।