ভারত বর্তমানে একটি সামাজিক সঙ্কটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে বলে মনে করেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়। টেলিভিশনে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছেন, যে শক্তিগুলোর জন্য ভারতে সামাজিক সঙ্কট, সেই শক্তিগুলোর রাশ টেনে ধরতে হবে। তাকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, সাম্প্রদায়িক অশান্তি কি অর্থনৈতিক বৃদ্ধিকে প্রভাবিত করে? জবাবে নোবেলজয়ী অর্থনীতি বলেছেন, ‘প্রভাবিত করে বলেই মনে করি।’

বিভিন্ন সময় দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সামাজিক ও সাম্প্রদায়িক হিংসার খবর সংবাদ শিরোনামে উঠে এসেছে। পশ্চিমা সংবাদমাধ্যমও এসব খবর প্রকাশ করেছে গুরুত্ব দিয়েই। এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে অভিজিতের উত্তর, ‘আমার মনে হয়, এই পরিস্থিতি বা সঙ্কট আমাদের নিয়ন্ত্রণে নেই। কারণ মনে হয়, শেষ পর্যন্ত এই মানুষগুলো (পশ্চিমা সংবাদমাধ্যম) ভারতের সম্পর্কে তেমন উৎসাহী নন। তারা শুধু বিনিয়োগের জন্য নিরাপদ জায়গা খোঁজেন। পরিস্থিতি সামান্য তিক্ত হলেই লগ্নি গুটিয়ে নেন।’

এখানেই থেমে থাকেননি অভিজিৎ। তিনি বলেন, ‘ভারত সম্পর্কে পশ্চিমা সংবাদমাধ্যমগুলোর বক্তব্য যখন পড়ি তখন একজন ভারতীয় হিসেবে ওই ঘটনাগুলোর সমর্থনে আমার তেমন কিছু বলার থাকে না। ভারতের পরিস্থিতি কি সত্যিই দুঃখজনক নয়?’

নিজের তোলা প্রশ্নের জবাব তিনি নিজেই দিয়েছেন। বলেছেন, ‘আমার মনে হয়, আমরা একটা সামাজিক সঙ্কটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছি। যেসব শক্তিগুলোর জন্য এই সঙ্কট, দাপিয়ে বেড়ানো ওই শক্তিগুলোকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে। তা যদি আমরা না পারি, তা হলে ভবিষ্যতে এর ফল ভুগতে হবে। শক্তিগুলো আমাদেরই আঘাত করবে।’

একই সঙ্গে এই অর্থনীতিবিদ মনে করিয়ে দিয়েছেন, ভারতের একটা সুবিধাও রয়েছে। তার কথায়, ‘গোটা দুনিয়া একটা কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে চলছে। আমরা সকলেই চাই নির্ভরযোগ্য, স্থিতিশীল পরিবেশ। কিন্তু বিশ্বের খুব কম জায়গাতেই এই রকম পরিবেশ রয়েছে। ফলে ভারত তুলনামূলকভাবে খুব একটা খারাপ অবস্থায় নেই।’

তবে শেষ পর্যায়ে অভিজিৎ জানিয়েছেন, পরিস্থিতি যখন অনুকূল হবে, তখন মানবিক চেহারাটি তুলে ধরতে হবে। সূত্র: আনন্দবাজার।