রাজবাড়ীর এক সড়কে রিকশা থেকে ছিটকে পড়েন রাজশাহী বাঘার পরিমল ঘোষ। এতে মাথায় গুরুতর আঘাত পেয়ে রোববার দুপুরে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান পরিমল। এ সংবাদ পেয়ে অর্থসংকটে থাকা তার পরিবার মরদেহ বাড়িতে নিয়ে আসার শঙ্কায় পড়েন।

পরে এলাকাবাসীর দেওয়া টাকায় তার মরদেহ নিজ বাড়িতে আনা হয়েছে বলে জানান পরিমলের বড় ভাই তাপস ঘোষ। সোমবার ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহ বাড়িতে এনে সৎকার করা হয়।

নিহত পরিমল ঘোষ রাজশাহী বাঘার আড়ানী ইউনিয়নের নুরনগর খয়েরমিল গ্রামের প্রয়াত যুগোল ঘোষের ছেলে।

নিহতের বড় ভাই তাপস ঘোষ বলেন, রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স মামুন হোসেন মৃত্যুর সংবাদটি জানিয়ে বলেন, জরুরি বিভাগে চিকিৎসার সময় মারা যান পরিমল ঘোষ।

তিনি জানান, রোববার দুপুর পৌনে ১টায় হাসপাতালে নিয়ে আসেন পথচারীরা। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোয়া একটার দিকে মারা যান তিনি।

তাপস ঘোষ জানান, গত মঙ্গলবার রাজশাহীতে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে চলে যান পরিমল। এর পর বড় ভাইয়ের মরদেহ পাওয়া যায়।

জানা যায়, ঘি বিক্রি করে সংসার চালান তার পরিবার। দিন এনে দিন খান তারা। অভাবের সংসারে এত টাকা খরচ করে মরদেহ বাড়িতে আনতে পারছিলেন না তারা।

রাজবাড়ি থানার উপপরিদর্শক (এসআই) কামরুজ্জামান বলেন, ময়নাতদন্তের পর নিহতের মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।