পেট ভরে না মিঠাইয়ে, মুখের
স্বাদ মেটায় শুধু। তাতে যদি চলে আসে নবাবি স্বাদ নেহাত মন্দ নয়। নবাবি স্বাদের কিছু মিঠাই নিয়ে রেসিপি দিচ্ছেন নুসরাত নিজাম

শাহি কালোজাম
উপকরণ : ১/২ কাপ ছানা, ১/৪ কাপ গুঁড়া দুধ, ১/২ টেবিল চামচ ময়দা, ১ টেবিল চামচ ঘি, ৩ টেবিল চামচ চিনি, ১/৪ চা চামচ বেকিং পাউডার, ফুড কালার, ১/২ কাপ তেল। শিরার জন্য ১ কাপ চিনি, ২ কাপ পানি, ২টি এলাচ, এক টুকরা দারুচিনি।
প্রস্তুত প্রণালি :প্রথমে ছানা, গুঁড়া দুধ ও ময়দা একত্রে মিশিয়ে নিতে হবে। এরপর তাতে ফুড কালার, ঘি ও চিনি দিয়ে স্মুথ করে মেখে নিয়ে কিছুক্ষণ ঢেকে রেখে দিতে হবে। এবার একটি চুলায় তেল গরম করতে দিতে হবে; খেয়াল রাখতে হবে যেন ধোঁয়া ওঠা গরম না হয়। এবার হাতে অল্প তেল বা ঘি মাখিয়ে নিয়ে মিশ্রণ থেকে ডো নিয়ে আলতো করে চেপে চেপে চপের আকারে বানিয়ে নিতে হবে। এবার অল্প আঁচে হালকা গরম তেলে মিষ্টিগুলো ভেজে নিতে হবে। অন্যদিকে অন্য একটি চুলায় পানি, চিনি, এলাচ ও দারুচিনি দিয়ে হালকা ঘন শিরা বানিয়ে নিতে হবে। মিষ্টিগুলো গোল্ডেন কালার হয়ে এলে চুলা থেকে নামিয়ে শিরায় ছাড়তে হবে এবং কিছুক্ষণ অপেক্ষা করতে হবে। অল্প আঁচে কিছুক্ষণ পরপর উল্টেপাল্টে দিয়ে মিষ্টিগুলো জ্বাল দিয়ে চুলা বন্ধ করে ১০-১৫ মিনিট একই অবস্থায় রেখে কিছুক্ষণ পর নামিয়ে নিতে হবে। তারপর ওপরে মাওয়া কিংবা গুঁড়া দুধ দিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

শাহি বালুশাই
উপকরণ : ময়দা দেড় কাপ, বেকিং সোডা ১/৪ চা চামচ, ঘি ১/৩ টেবিল চামচ, টকদই ১/৩ কাপ, তেল ১/২ কাপ। শিরার জন্য চিনি ২ কাপ, পানি ১ কাপ, জয়ফল গুঁড়া ১/৪ চা চামচ।
প্রস্তুত প্রণালি :প্রথমে ময়দা, বেকিং পাউডার ও ঘি একত্রে মিশিয়ে কিছুক্ষণ মেখে নিতে হবে যেন ময়দায় ঘি ভালোমতো মিশে যায়। এরপর এতে টকদই দিয়ে অমসৃণভাবে ২০ মিনিট ঢেকে রাখতে হবে। ২০ মিনিট পর ডো অল্প অল্প করে নিয়ে চপের আকারে বানিয়ে নিয়ে চুলায় অল্প আঁচে ডুবোতেলে মিষ্টিগুলো ভাজতে হবে। অন্যদিকে অন্য একটি চুলায় পানি, চিনি ও জয়ফল গুঁড়া দিয়ে জ্বাল দিয়ে হালকা ঘন শিরা বানিয়ে নিতে হবে। মিষ্টিগুলো গোল্ডেন কালার হয়ে এলে নামিয়ে একটু ঠান্ডা করতে হবে। তারপর মিষ্টিগুলো শিরায় ছেড়ে দিয়ে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করতে হবে। কিছুক্ষণ পর মিষ্টিগুলো একটু ফুলে উঠলে শিরা থেকে নামিয়ে মাওয়া দিয়ে গড়িয়ে পরিবেশন করতে হবে।

শাহি ফিরনি
উপকরণ : আধা কাপ পোলাও চালের গুঁড়া, দেড় কাপ চিনি, এক লিটার দুধ, ১ টেবিল চামচ মাওয়া গুঁড়া, সামান্য জাফরান, কুচি করা লাউ ২ টেবিল চামচ, পেস্তা ও কাজু বাদাম কুচি, সামান্য কিশমিশ সাজানোর জন্য।
প্রস্তুত প্রণালি : প্রথমে এক লিটার দুধে ২টি এলাচ দিয়ে জ্বাল দিয়ে ফুটতে দিতে হবে। পোলাও চাল ধুয়ে গুঁড়া করে দুধে দিয়ে অনবরত নাড়তে হবে যেন তলায় না লেগে যায়। চাল ফুটে গেলে চিনি, বাদাম বাটা, কুচি করা সিদ্ধ লাউ দিয়ে নাড়তে হবে। মিশ্রণটি ঘন হয়ে এলে পেস্তা বাদাম কুচি, কেওড়া জলে ভেজানো জাফরান দিয়ে নামিয়ে নিতে হবে। এবার পরিবেশন পাত্রে ঢেলে ওপরে বাদাম কুচি, কিশমিশ দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

শাহি মালাইচপ
উপকরণ : ১ কাপ ছানা, আধা কাপ চিনি, আধা চা চামচ বেকিং পাউডার, ১ টেবিল চামচ ঘি, সামান্য জাফরান, পেস্তা বাদাম কুচি ১ টেবিল চামচ, ১ লিটার দুধের ১ টেবিল চামচ দুধের মালাই।
প্রস্তুত প্রণালি : প্রথমে ১ লিটার দুধে আধা কাপ চিনি দিয়ে কিছুক্ষণ জ্বাল দিয়ে বলক উঠাতে হবে। অন্যদিকে এক কাপ ছানাকে আলতো করে মেখে ঘি ও বেকিং পাউডার যোগ করে ভালোভাবে মেখে নিতে হবে। তারপর মিশ্রণটি আলতো করে চেপে চপের আকারে বানিয়ে নিতে হবে। এই ছানার চপগুলোকে জ্বাল দেওয়া দুধে ১০ মিনিট মাঝারি আঁচে জ্বাল দিতে হবে। ১০ মিনিট পর একটু উল্টেপাল্টে দিয়ে আরও ১০ মিনিট জ্বাল দিতে হবে। দুধ ঘন হয়ে এলে চপগুলো নামিয়ে নিতে হবে ও ওপরে মালাই, বাদাম কুচি ও জাফরান দিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

শাহি টুকরা
উপকরণ : ৫টি পাউরুটি, আধা কাপ কনডেন্সড মিল্ক্ক, এক লিটার ঘন দুধ, পরিমাণমতো কাজু ও পেস্তা বাদাম কুচি, ২ টেবিল চামচ দুধের মালাই, ২ টেবিল চামচ ঘি, আধা চা চামচ কেওড়া জল।
প্রস্তুত প্রণালি : প্রথমে এক লিটার দুধে ঘি এবং কনডেন্সড মিল্ক্ক দিয়ে জ্বাল করে ঘন করে নিতে হবে। দুধ ঘন হয়ে এলে কাজু বাদাম কুচি ও পেস্তা বাদাম কুচি দিয়ে নামিয়ে নিতে হবে। এবার যে পাত্রে পরিবেশন করা হবে, তাতে পাউরুটিগুলো বিছিয়ে নিয়ে তার ওপরে জ্বাল দেওয়া দুধ ঢেলে দিতে হবে। এরপর কেওড়া জলে ভেজানো জাফরান ও মালাই দিয়ে পরিবেশন করুন।