কলকাতার টিভি পর্দায় কখনও বকুল কখনও কাদম্বিনী হয়ে দর্শকদের নজর কেড়েছেন ঊষসী রায়। টিআরপির দৌড়ে এঁটে উঠতে না পেরে দ্রুত ‘কাদম্বিনী’ বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর জনপ্রিয়তা কমেনি এই অভিনেত্রীর। অ্যাওয়ার্ড শো থেকে নন-ফিকশন শো-এর মঞ্চ সর্বত্রই বিরাজমান ঊষসী।

সৌন্দর্য আর সুন্দর ফিটনেসের কারণে কলকাতার গণমাধ্যমগুলোতে হর হামেশাই উঠে আসেন তিনি। আজও এলেন। হিন্দুস্তান টাইমস তার ফিটনেসের রহস্য নিয়ে একটি প্রতিবেদন করেছে। যেখানে  ঊষসী জানিয়েছেন, ফিটনেস ঠিক রাখতে  নিয়মিত শরীরচর্চা করেন ঊষসী। সকালে জিমের জন্য বরাদ্দ থাকে এক ঘণ্টা। 

শরীরচর্চার পাশাপাশি খাওয়াদাওয়ার দিকেও বিশেষ নজর দেন ঊষসী। প্রাতঃরাশ সারেন দুধ-কর্নফ্লেক্স দিয়ে। চিনি যদিও বাদ। বেলা গড়ালে বরাদ্দ থাকে একটি ফল। জিম থেকে এসে খেয়ে নেন অলিভ অয়েলে ভাজা ডিমের সাদা অংশ। মধ্যাহ্নভোজের মেনুতে থাকে এক কাপ ভাতের সঙ্গে ডাল, তরকারি, মাছ বা মাংস।

বিকেলের দিকে টক দই খান ঊষসী। সন্ধ্যায় চিনি ছাড়া লিকার চা। খুব খিদে পেলে সঙ্গে থাকে ঘিয়ে ভাজা মাখনা। নৈশভোজে আমিষ । পালং শাক, গাজর বা অন্যান্য সব্জি দিয়ে তৈরি রুটি বা চিলা সহযোগে তরকারি দিয়ে রাতের খাওয়া সারেন।

তবে এত কড়াকড়ির মধ্যেই ফাঁকি দেন ঊষসী। মাঝেমধ্যেই চলে রেস্তরাঁ-টহল। পছন্দের চিজ কেক, ব্রাউনি, ডোনাটসের স্বাদ নিয়ে নেন অভিনেত্রী।