আদর আজাদ। অভিনেতা ও মডেল। সম্প্রতি চিত্রনায়ক হিসেবে অভিষেক হলো তার।  মুক্তি পেয়েছে তার অভিনীত প্রথম ছবি 'তালাশ'। অভিষেক, অভিনয় ভাবনা ও অন্যান্য প্রসঙ্গে কথা হয় তার সঙ্গে-

দর্শকদের সঙ্গে তালাশ দেখছেন অভিজ্ঞতা কেমন? 

এক কথায় অসাধারণ। দর্শকের সঙ্গে নিজের অভিনীত 'তালাশ' ছবিটি দেখে আনন্দ ভাগাভাগি করেছি। সবাই সরাসরি প্রশংসা করেছে। ভুলগুলোও ধরিয়ে দিয়েছে। এটা আমার জন্য বড় পাওয়া।

চলচ্চিত্রে অভিষেকের পর কেমন লাগছে?

ছবি মুক্তির পর এখনও ঘোরের মধ্যে আছি। যে ছবিটি নিয়ে দিনের পর দিন কাজ করেছি, সবার সঙ্গে ভালো কিছু করার চেষ্টায় ছিলাম- সেটি এখন দর্শক দেখছেন। এসব ভেবে অন্যরকম অনুভূতি কাজ করছে, যা ভাষায় বলে বোঝাতে পারব না। প্রথম সবকিছু তুলনাহীন। ছবিটি যাঁরা দেখেছেন তাঁদের কাছ থেকে বেশ প্রশংসা পাচ্ছি। বৃষ্টি, বন্যার মধ্যেও দর্শক ছবিটি দেখছেন। বুবলীর সঙ্গে আমার পর্দার রসায়ন দর্শক গ্রহণ করেছেন।

ছবিটি দর্শক কেন দেখছেন বলে মনে করছেন?

এটি মৌলিক গল্পের ছবি। দর্শক ছবিতে মৌলিক গল্প দেখতে চান। যে জন্য দর্শক এটি দেখছেন। 'তালাশ' একটি বিনোদন প্যাকেজ। প্রেম, ভালোবাসা, থ্রিল, বিরহ- সবই আছে। দর্শক ছবির সঙ্গে একাত্ম হতে পেরেছেন। সবাই বলছেন পয়সা উশুল ছবি।

ছবিতে আপনি একজন রকস্টারের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। 'সুমন' চরিত্রের জন্য প্রস্তুতি কেমন ছিল?

'সুমন' হয়ে ওঠার জন্য চার মাস পরিশ্রম করতে হয়েছে। আমি মিউজিক লাভার। তিন বছর আমি বাস্তবেও একটি ব্যান্ডের সদস্য ছিলাম। ছবিতে অভিনয়ের ক্ষেত্রে এই অভিজ্ঞতা কাজে লেগেছে।

হাতে থাকা অন্য ছবির কী খবর?

'স্বপ্নে দেখা রাজকন্যা', 'যাও পাখি বলো তারে', 'লাইভ'- ছবির কাজ শেষ করেছি। 'লোকাল' সিনেমার শুটিং চলছে। এ ছাড়া আরও ছবির বিষয়ে কথা হচ্ছে। সবকিছু পাকাপাকি হলে জানাব।

অভিনয় নিয়ে আপনার ভাবনার কথা জানতে চাই।

ক্যারিয়ারের শুরুতে নাটক, মডেলিং নিয়ে ব্যস্ত থেকেছি। এবার সিনেমায় থিতু হতে চাই। এখন লক্ষ্য দর্শক ও নির্মাতাদের কাছে নিজেকে আরও যোগ্য করে তুলে ধরা। ভালো গল্প, চরিত্র ও নির্মাতাদের সঙ্গে কাজের মধ্য দিয়েই তা সম্ভব। আমি লক্ষ্যের দিকেই এগিয়ে চলছি। আগামী আরও কিছু ভিন্নধর্মী কাজ নিয়ে দর্শকের সামনে হাজির হওয়ার ইচ্ছা রয়েছে।