হাশিম মাহমুদ। ‌'সাদা সাদা কালা কালা'- গানের স্রষ্টা। 'হাওয়া' ছবির এই গানটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে লাইমলাইটে আসেন তিনি। তাকে নিয়ে গণমাধ্যমগুলো প্রকাশ করে একের পর এক প্রতিবেদন। 

গানটি জনপ্রিয়তার সূত্র ধরে হাওয়া ছবিটিও দর্শক আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে আসে। হলে হলে ছবিটি দেখতে হুমড়ি খেয়ে পড়েন দর্শক। এবার সেই হাওয়া সিনেমা হলে এসে দেখলেন জরাজীর্ণ শরীরে রোগ শোকের ভারে নুয়ে পড়া হাশিম মাহমুদ।  শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টায় রাজধানীর এসকেএস টাওয়ারের স্টার সিনেপ্লেক্সে হাওয়া সিনেমাটি তার মা, ভাই-স্বজনসহ ৫০ জনকে নিয়ে দেখেছেন তিনি। 

হাওয়া' দেখার পর হাশিম মাহমুদ তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় সাংবাদিকদের বলেন, ‘ছবিটি দেখে ভালো লেগেছে। এই ছবিতে আমার সাদাসাদা কালাকালা গানটি ব্যবহার করা হয়েছে। গানটি দেশের মানুষ পছন্দ করেছে এটা তো অনেক বড় পাওয়া।'

হাশিম মাহমুদের সঙ্গে পরিচালক মেজবাউর রহমান সুমন, ছবিটির অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী ও তুষিরাও দেখেন 'হাওয়া'। 

চঞ্চল চৌধুরী বলেন, ‘আমি চারুকলার ছাত্র।  সেখানে পড়ার সময় আমিও হাশিম ভাইকে পেয়েছি। উনাকে চিনি ২৫ থেকে ৩০ বছর ধরে। উনার গান এখন সারা দেশের মানুষ শুনছে, এর চেয়ে বড় বিষয় আর কী হতে পারে।’

জানা গেছে , ছবিটি দেখার পর নারায়ণগঞ্জ ফেরার পথে চারুকলা গিয়েছিলেন হাশিম মাহমুদ। চিরচেনা চারুকলায় দীর্ঘক্ষণ চুপ হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন সাদাসাদা কালাকালা' এর এই স্রষ্টা।