বঙ্গবন্ধুর বায়োপিক ‘মুজিব: দ্য মেকিং অব আ নেশন' এর কিছু কিছু জায়গায় ফের শুট করা হচ্ছে। ভিএফএক্স (ভিজুয়াল ইফেক্টস) সম্পাদনায়ও নতুন একটি প্রতিষ্ঠান যুক্ত হয়েছে। যে প্রতিষ্ঠান এর আগে ভারতের আলোচিত ছবি 'বাহুবলী' ছবির সম্পাদনা করেছে। সমকালকে এ তথ্য জানিয়েছেন  'মুজিব : দ্য মেকিং অব অ্যা নেশন'  ছবির  সহকারি নির্মাতা ও কাস্টিং ডিরেক্টর বাহাউদ্দিন খেলন।

খেলন বলেন,  বায়োগ্রাফির ট্রেলার প্রকাশের পর অনেক ভুল ক্রুটি ধরা পরে। আমরা সেটা বিশ্লেষণ করে দেখলাম যে বিজ্ঞ সমালোচকরা যে বিষয়গুলোর সমালোচনা করেছেন তার অনেক কিছুই ঠিক এবং আমাদের বিষয়গুলোতে আরও সতর্ক করা উচিত। আসলে ছবিটিতে ভিএফক্সের দূর্বলতাই হচ্ছে সমালোচনার মূল জায়গা। তাই আগে যে ভিএফএক্স কোম্পানি ছিলো তাদের সঙ্গে ভারতের সবচেয়ে শ্রেষ্ঠ ভিএফএক্স কোম্পানিকে যুক্ত করেছি। যারা এর আগে 'বাহুবলী' ছবির ভিএফএক্স করেছে। এখন দুই কোম্পনি মিলে যৌথভাবে ভিএফএক্সের কাজ করছে।  

তার দাবি ভিএফএক্সের কাজ শেষ হয়ে গেলে  ছবিটিতে আর কোনো দূর্বলতা থাকবে না। মুক্তির পর ছবিটি পৃথিবীব্যাপী  প্রশংসিত হবে বলে তার বিশ্বাস। 

কান চলচ্চিত্র উৎসবের বাণিজ্যিক শাখা মার্শে দ্যু ফিল্মের অংশ হিসেবে ভারতীয় প্যাভিলিয়নে গত ১৯   মে বঙ্গবন্ধুর বায়োপিক ‘মুজিব: দ্য মেকিং অব আ নেশন'- এর ট্রেলার প্রকাশিত হয়। তারপর  থেকেই ছবিটি নিয়ে আলোচনার বদলে সমালোচনা উঠতে শুরু করে। মিনিটের ওই ট্রেলারের বঙ্গবন্ধুকে দেখে হতাশ অনেকেই। প্রশ্ন উঠে এ কোন বঙ্গবন্ধূকে দেখালেন ভারতীয় নির্মাতা শ্যাম বেনেগাল! ট্রেলারে   ভিজ্যুয়াল এফেক্টস, বঙ্গবন্ধুর  মেকআপ-গেটআপ ইত্যাদি নিয়ে সমালোচনার ঝড় বইতে শুরু করে। যার পরিপ্রেক্ষিতে নতুন করে ভিএফএক্সের দিকে মনোযোগ দেয় কর্তৃপক্ষ। 

শুধু ভিএফএক্সেই নয়। ছবিটির বিভিন্ন দৃশ্য ফের শুট করা হবে বলেও জানান খেলন। তিনি বলেন, ছবিটির কিছু কিছু দৃশ্যেরও রিশুট করা হচ্ছে।  তবে সেটা বেশি দিন লাগবে না। সপ্তাহ খানেকের কাজ।

এসব কাজের প্রয়োজনেই ছবিটি সেপ্টেম্বরের যে তারিখে মুক্তির কথা ছিলো নির্ধারিত সেই তারিখে মুক্তি পাচ্ছে না। সেটা পিছিয়ে অক্টোবর হতে পারে বলে জানালেন খেলন। 

এদিকে সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র শ্রী অরিন্দম বাগচি জানিয়েছেন। ছবিটি মুক্তি এ বছরের ডিসেম্বরে মুক্তি পেতে পারে। 

বাগচি বলেন, ‘আমি মনে করি শ্যাম বেনেগাল এবং তাঁর দল সিনেমাটির শুটিং, সম্পাদনা এবং কম্পিউটার গ্রাফিক্স প্রায় শেষ করে ফেলেছেন। বছরের শেষের দিকে বা এই বছরে সিনেমাটি মুক্তি পাবে; সেটি চূড়ান্ত হলে আমরা আনুষ্ঠানিকভাবে জানাতে পারব।’

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশন (বিএফডিসি) জানিয়েছে,  ৮৩ কোটি টাকা বাজেটে নির্মিত হচ্ছে ‘মুজিব’ সিনেমা।

সিনেমাটির নির্বাহী প্রযোজক ও বিএফডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক নুজহাত ইয়াসমিন  জানিয়েছেন, সিনেমাটি নির্মাণের জন্য বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে ৭০ কোটি রুপির সমঝোতা স্মারক চুক্তি হয়েছে, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় ৮৩ কোটি টাকা। বাজেটের ৬০ ভাগ অর্থ বাংলাদেশের দেওয়ার কথা; বাকি ৪০ ভাগ অর্থ ভারতের বিনিয়োগ।

বায়োপিকে বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে অভিনয় করছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জয়ী অভিনেতা আরিফিন শুভ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চরিত্রে রয়েছেন নুসরাত ফারিয়া। এ ছাড়া, তাজউদ্দীন আহমদের চরিত্রে ফেরদৌস আহমেদ এবং বঙ্গবন্ধুর স্ত্রী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিবের চরিত্রে নুসরাত ইমরোজ তিশা অভিনয় করছেন।

অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করছেন খায়রুল আলম সবুজ, দিলারা জামান, সায়েম সামাদ, শহীদুল আলম সাচ্চু, প্রার্থনা ফারদিন দীঘি, রাইসুল ইসলাম আসাদ, গাজী রাকায়েত, তৌকীর আহমেদ, সিয়াম আহমেদ, মিশা সওদাগর, এলিনা শাম্মী।