আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বাংলাদেশ-ভারত যৌথ উদ্যোগে নির্মিতব্য বঙ্গবন্ধুর বায়োপিক প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনের পর মুক্তি দেওয়া সম্ভব হবে। আশা করছি, এ বছরের মধ্যেই এটি করতে পারব।

সোমবার সচিবালয়ে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রীর দপ্তরে ভারতের বিদায়ী হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী সাক্ষাৎ করার পর সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ভারত ও বাংলাদেশ মৈত্রী রক্তের অক্ষরে, রক্তের বন্ধনে আবদ্ধ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে এ বন্ধন আরও দৃঢ় হয়েছে। গত সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী ভারত সফর করেছেন এবং এ সফরে অনেক অর্জন আছে। কুশিয়ারা নদীর পানি বণ্টন, ভারতের স্থলভাগের ওপর দিয়ে তৃতীয় দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের আমদানি-রপ্তানি সুবিধা- যার জন্য আমরা বহুদিন ধরে চেষ্টা করছিলাম, এ সফরে এটির সুরাহা হয়েছে। এটি একটি বড় অর্জন। এই সফর সফল করার ক্ষেত্রে ভারতের হাইকমিশনার দোরাইস্বামীর অনেক বড় ভূমিকা ছিল বলেও উল্লেখ করেন হাছান মাহমুদ।

এর আগে ভারতের বিদায়ী হাইকমিশনার সাংবাদিকদের বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের চমৎকার বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক করোনা মহামারির সময়েও ম্লান হয়নি। এই সম্পর্ক দৃঢ় থেকে দৃঢ়তর হবে বলে আমার বিশ্বাস।