এবারের দুর্গাপূজায় দেশের কোনো মণ্ডপ ও মন্দির অরক্ষিত অবস্থায় নেই বলে মনে করেন পূজা উদযাপন পরিষদ নেতারা। তাঁরা বলেন, এবারও নিরাপদে দুর্গাপূজা করা যাবে।

শুক্রবার ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির মিলনায়তনে শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় নেতারা এসব কথা বলেন। মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটি এ সভার আয়োজন করে।

এ সময় বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক চন্দ্রনাথ পোদ্দার বলেন, আমাদের সনাতন সম্প্রদায়ের যাঁরা পূজা আয়োজন করছেন, তাঁরা মনে করছেন, সুষ্ঠুভাবে দুর্গোৎসব করতে পারবেন। বাকি বিষয় সরকার ও প্রশাসন দেখবে।

এর আগে শনিবার পৃথক মতবিনিময় সভায় পূজা উদযাপন পরিষদ অবশ্য বলেছিল, এবারও নিরাপদে দুর্গাপূজা করা যাবে বলে মনে করে না তারা। বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম বলেন, এবার দুর্গাপূজা ঘিরে জঙ্গি হামলার শঙ্কা একেবারে উড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে না।

এ অবস্থায় নিরাপত্তার বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটির সভাপতি মনীন্দ্র কুমার নাথ বলেন, মানসিক অবস্থার পরিবর্তন হলে আরও কম পুলিশ দিয়ে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা সম্ভব।

লিখিত বক্তব্যে মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটির সাধারণ সম্পাদক রমেন মণ্ডল ঢাকা মহানগরের সব পূজামণ্ডপের জন্য ২১ দফা নির্দেশনা তুলে ধরেন। এর মধ্যে রয়েছে সন্দেহভাজন দর্শনার্থীদের দেহ তল্লাশির ব্যবস্থা, আর্থিক সঙ্গতি বিবেচনায় সিসিটিভি ক্যামেরার ব্যবস্থা করা। সভা থেকে ১০ দফা দাবি জানানো হয়।