লালমনিরহাটের তিস্তা রেলস্টেশন এলাকায় ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে।

আহতদের লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে। তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

শনিবার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার গোকুন্ডা ইউনিয়নের রেলস্টেশনের সামুটারি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহতদের মধ্যে গোকুন্ডা ইউনিয়নের নজরুল ইসলামের ছেলে আজিম হোসেন (২৯), জসিম উদ্দিনের ছেলে বায়তুল ইসলাম (১৮), জয়নাল আবেদিনের ছেলে আজিজার রহমান জুয়েল (২৮), মোখলেছুর রহমানের পুত্র কফি আনান (২২), মোজাম্মেল হকের ছেলে আখলাক (১৯), তারেক খন্দকারের ছেলে দারা খন্দকার (২৩), সামসুল হকের ছেলে মজিবুল ইসলামের (১৮) নাম জানা গেছে। এদের প্রত্যেকের বাড়ি গোকুন্ডা ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিলের পতাকা নামানোর ঘটনাকে কেন্দ্র করে কয়েক দিন ধরে ওই গ্রামে দুই গ্রুপের মধ্যে বিতর্ক চলে আসছিল। শনিবার সন্ধ্যায় ওই গ্রামের ব্রাজিল সমর্থক কফি আনানের ওপর পতাকা নামিয়ে চুরির অভিযোগ তোলে আর্জেন্টিনার সমর্থক আব্দুল্লাহ আল মামুন। এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে সন্ধ্যায় দুই দলের সমর্থকরা রেলস্টেশন এলাকায় হাজির হয়। এক পর্যায়ে তারা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। তার আগেও উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়।

লালমনিরহাট সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এরশাদ আলম বলেন, খবর পেয়েই তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে কোনো পক্ষই  লিখিত অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।