ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

মোরশেদুল ইসলামকে নিয়ে আতিকের প্রামাণ্যচিত্র

মোরশেদুল ইসলামকে নিয়ে আতিকের প্রামাণ্যচিত্র

মোরশেদুল ইসলাম ও নূরুল আলম আতিক

বিনোদন প্রতিবেদক

প্রকাশ: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ১৬:২৮ | আপডেট: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ১৬:৪০

মোরশেদুল ইসলাম দেশের বরেণ্য একজন চলচ্চিত্রকার। তার নির্মিত সিনেমায় ফুটে উঠে বাংলাদেশের সৌন্দর্য, সংস্কৃতি, ঐতিহ্য, মাটি ও মানুষের গল্প এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনা। দীর্ঘ চলচ্চিত্রজীবনে তিনি উপহার দিয়েছেন অনেক কালজয়ী সিনেমা। অর্জন করেছেন দেশে-বিদেশে অনেক স্বীকৃতি ও অর্জন। ১৯৮৪ সালে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘আগামী’ পরিচালনার মাধ্যমে চলচ্চিত্রাঙ্গনে যাত্রা করেন মোরশেদুল ইসলাম। ব্রিটিশ কাউন্সিল মিলনায়তনে ১৯৮৪ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি সিনেমাটি প্রথম দেখানো হয়। এই সিনেমা মোরশেদুল ইসলামকে ১৯৮৫ সালে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে সেরা স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র বিভাগে সেরা পরিচালকের স্বীকৃতি এনে দেয়। ‘আগামী’ সিনেমার জন্য নয়াদিল্লীতে মোরশেদুল ইসলাম সেরা পরিচালক হিসেবে ‘রৌপ্য ময়ূর’ পান।

এরপর ১৯৯৩ সালে তিনি নির্মাণ করেন সেলিম আল দীন রচিত ‘চাকা’ গল্প অবলম্বনে কালজয়ী সিনেমা ‘চাকা’। ১৯৯৬ সালে মুহম্মদ জাফর ইকবালের উপন্যাস অবলম্বনে নির্মাণ করেন ‘দীপু নাম্বার টু’ । এটি ঢালিউডের ইতিহাসে অন্যতম একটি সফল সিনেমা হিসেবে অভিহিত। পরের বছর তার নিজের লেখা কাহিনী নিয়ে ‘দুখাই’। ২০০৪ সালে হুমায়ূন আহমেদের গল্প নিয়ে নির্মাণ করেন ‘দূরত্ব’। ২০০৬ সালে মাহমুদুল হকের উপন্যাস নিয়ে নির্মাণ করেন সিনেমা ‘খেলাঘর’।

২০০৯ সালে হুমায়ূন আহমেদের উপন্যাস অবলম্বেন নির্মাণ করেন ‘প্রিয়তমেষু’। ২০১১ সালে মুহম্মদ জাফর ইকবালের উপন্যাস অবলম্বনে নির্মাণ করেন ‘আমার বন্ধু রাশেদ’। ২০১৫ সালে হুমায়ূন আহমেদের উপন্যাস অবলম্বনে নির্মাণ করেন ‘অনিল বাগচীর একদিন।

গুণী এই চলচ্চিত্রকারকে নিয়ে নূরুল আলম আতিক নির্মাণ করেছেন প্রামাণ্যচিত্র। নাম ‘অ্যান্ড দেয়ার ওয়াজ লাইট’। জীবনভিত্তিক এই প্রামাণ্যচিত্রটির গবেষণা ও চিত্রনাট্যও করেছেন নূরুল আলম আতিক। তিনি জানান, ‘অ্যান্ড দেয়ার ওয়াজ লাইট’ প্রামাণ্যচিত্রে অংশগ্রহণ করেছেন মোরশেদুল ইসলাম, শুভাশিষ রায়, গাজী রাকায়েত, আশীষ খন্দকার, বেলায়েত হোসেন মামুন, জাকির হোসেন রাজু, মেজবাউর রহমান সুমন, শামীম আক্তার, ফাখরুল আরেফিন খান, এল অপু রোজারিও, রতন পাল, জুনায়েদ হালিম, সোহানা সাবা, আফনান চৌধুরী এবং মো শাহরিয়ার আল মামুন। নূরুল আলম আতিক বলেন, ‘আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারি ‘আগামী’ সিনেমার ৪০ বছর পূর্তি হচ্ছে। আর দিনটিকে বিশেষ করে রাখবার জন্য শিল্পকলা একাডেমিতে আয়োজিত হচ্ছে এক প্রীতি সম্মিলনের। সেখানেই মোরশেদুল ইসলামের ‘আগামী’ এবং আমার ‘অ্যান্ড দেয়ার ওয়াজ লাইট’ প্রামাণ্যচিত্রটির প্রদর্শনী হবে।

 

আরও পড়ুন

×