ঢাকা শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

যত্নে থাকুক পা

যত্নে থাকুক পা

রাফিয়া আহমেদ

প্রকাশ: ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ১২:০০

পূজা আসছে। উৎসবের দিনগুলোতে মুখ ও হাতের মতো পায়ের যত্ন নিতে হবে। কর্মব্যস্ত দিনগুলোতে পায়ের ওপরও বেশি চাপ পড়ে। দিনের পর দিন যত্ন না নিলে পায়ের ত্বক রুক্ষ হয়ে যায়। নখে ফাঙ্গাস হতে পারে। পায়ের যত্ন নেওয়ার ঘরোয়া উপায় নিয়ে লিখেছেন রাফিয়া আহমেদ

সংসার ও কাজ সামলে সবসময় পার্লারে যাওয়া হয় না। তা ছাড়া খরচের বিষয়টি তো আছেই। খরচ বাঁচাতে হাতের কাছে থাকা ঘরোয়া উপাদান দিয়ে ত্বকের যত্ন নিতে পারবেন। পায়ের যত্নে স্ট্ক্রাব ব্যবহার করা যেতে পারে। স্ট্ক্রাব ব্যবহার করার ফলে পায়ের ত্বক হয়ে উঠবে কোমল ও চকচকে। এতে রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি পায় এবং পা সচল রাখতে সহায়তা করে। স্ট্ক্রাবের সাহায্যে ফুট ম্যাসাজ করলে শরীর ও মন সতেজ হয় এবং কাজের গতি বাড়ে। ফুট স্ট্ক্রাব করলে পায়ের ত্বকের ময়লা দূর হয় এবং মৃত কোষগুলো আর থাকে না। দীর্ঘ সময় হাঁটা বা দৌড়ানোর পরে পায়ের পেশিতে টান লাগা বা যে ব্যথার জন্ম হয়, তা থেকে দ্রুত মুক্তি মেলে এই ফুট স্ট্ক্রাবিংয়ের মাধ্যমে।
ঘরোয়া উপায়ে যেভাবে পায়ে স্ট্ক্রাব করতে পারেন :
ব্রাউন সুগার বা লাল চিনি ও অলিভ অয়েল একসঙ্গে মিশিয়ে ফুট স্ট্ক্রাব করা যেতে পারে। খেয়াল রাখতে হবে অলিভ অয়েলের সঙ্গে মেশাতে গিয়ে যেন চিনি একদম গলে না যায়। কারণ চিনির দানাটাই স্ট্ক্রাবিংয়ের মূল কাজ করবে। এ ছাড়া এসেনশিয়াল অয়েল এবং ১ চা চামচ পরিমাণ বেকিং সোডা এর সঙ্গে মিশিয়ে নিলে আরও ভালো ফল পাওয়া যায়। এই উপকরণগুলো ভালোভাবে মিশিয়ে পায়ের হাঁটুর নিচ থেকে একদম পায়ের পাতা ও গোড়ালি পর্যন্ত ২০ মিনিটের জন্য ম্যাসাজ করুন। তারপর পরিস্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। আলতোভাবে মুছে ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন। এটি অন্য সব স্ট্ক্রাবের তুলনায় খুবই সহজ। এতে থাকা ব্রাউন সুগার ও এসেনশিয়াল অয়েল আপনার পায়ের ত্বককে নমনীয় করে তুলবে।
বেকিং সোডার ফুট স্ট্ক্রাব পায়ের যত্নে দারুণভাবে কাজ করে। এ ক্ষেত্রে ৩ টেবিল চামচ বেকিং সোডা এবং পরিমাণ মতো পানি মিশিয়ে একটি ঘন পেস্ট তৈরি করুন। প্যাকটি আপনার পায়ে লাগিয়ে ১০ মিনিট পর্যন্ত ম্যাসাজ করুন। তারপর ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন। বেকিং সোডার এই স্ট্ক্রাব খুব সহজেই তৈরি করা যায় এবং এটি ব্যবহারে পায়ের মাসলসে যে ব্যথা হয়, তা উপশম হয়। এটি পায়ের চামড়ায় থাকা ফাঙ্গাল ইনফেকশনের বিরুদ্ধে কাজ করে।
আনারস ও টক দইয়ের মাধ্যমে ফুট মাস্ক তৈরি করে পায়ের যত্ন নেওয়া যেতে পারে। আনারসের পেস্ট ১/২ কাপ নেবেন, এরপর মোটা দানার চিনি ১/২ কাপ এবং ২ টেবিল চামচ টক দই নিয়ে মিশিয়ে নিন। প্যাকটি আপনার পায়ে ১০-১২ মিনিট ধরে ম্যাসাজ করুন। তারপর ১০ মিনিট রেখে দিন। সব শেষে কুসুম গরম পানি দিয়ে আলতো করে ধুয়ে ফেলুন। আনারসে থাকে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি ও এনজাইম, যা ত্বককে এক্সফোলিয়েট করে ত্বকের মরা কোষ দূর করে এবং ত্বকের চামড়া উজ্জ্বল করে তোলে।
কফি ও নারকেল তেলের মাধ্যমেও ফুট স্ট্ক্রাব বা পায়ের যত্ন নেওয়া যায়। কফি পাউডার ২ টেবিল চামচ, এর সঙ্গে চিনি ২ টেবিল চামচ এবং নারকেল তেল ১ টেবিল চামচ ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। এরপর পুরো পায়ে ১০ মিনিট সময় নিয়ে ভালোভাবে ম্যাসাজ করুন। তারপর কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। কফি স্ট্ক্রাব পায়ের রক্ত সঞ্চালন বাড়িয়ে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায়। কফিতে আছে অ্যান্টি-ইনফ্লামেটোরি প্রোপার্টিস, যা পায়ের ব্যথা উপশমে সাহায্য করে।
সুগার অ্যান্ড মিল্ক্ক ফুট স্ট্ক্রাব পায়ের ত্বকের উজ্জ্বলতা অনেকটা বাড়িয়ে তোলে। এ ক্ষেত্রে ২ কাপ তরল দুধ কিংবা আপনি চাইলে দুই কাপ গুঁড়া দুধের সঙ্গে ২ কাপ কুসুম গরম পানি মিশিয়ে নিতে পারেন। এরপর এই মিশ্রণটিতে আপনার পা দুটো পরিস্কার করে ভিজিয়ে রাখুন ১০ থেকে ১৫ মিনিট। ১০ থেকে ১৫ মিনিট পর পা নরম ও পরিস্কার তোয়ালে দিয়ে মুছে নিন। এরপর তিন টেবিল চামচ মোটা দানার চিনি এবং এক টেবিল চামচ নারকেল তেল ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। এবার এই মিশ্রণটি ১০ মিনিট পর্যন্ত ম্যাসাজ করুন এবং কুসুম গরম পানি দিয়ে পা ধুয়ে ফেলুন। া

আরও পড়ুন

×