ঢাকা বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪

মেকআপ ব্রাশের আদ্যোপান্ত

মেকআপ ব্রাশের আদ্যোপান্ত

ফারহানা ইয়াসমিন

প্রকাশ: ১০ অক্টোবর ২০২৩ | ১৮:০০ | আপডেট: ১১ অক্টোবর ২০২৩ | ১১:২২

মেকআপ ব্রাশ ছাড়া সাজগোছ কল্পনা করা অসম্ভব। কেননা, ত্বকে ভালোভাবে মেকআপ সেট করার ক্ষেত্রে এবং একটি সুন্দর লুকের জন্য মেকআপ ব্রাশের বড়ই প্রয়োজন।

মেকআপ ব্রাশের প্রকারভেদ: বাজারে দুই ধরনের ব্রাশের ছড়াছড়ি রয়েছে। একটি হলো ব্র্যান্ডের ব্রাশ, আর অন্যটি আসল ব্র্যান্ডের রেপ্লিকা ব্রাশ। ব্র্যান্ডের ব্রাশগুলো আলাদা আলাদা মোড়কে র‍্যাপিং করা থাকে। যেটা রেপ্লিকা মেকআপ ব্রাশগুলোয় থাকে না। সুতরাং কেনার ক্ষেত্রে যাচাই-বাছাই করে আসল ব্রাশটি কিনতে হবে। কারণ, মেকআপ ফিনিশিং পাওয়া যায় আসল ব্র্যান্ড ব্যবহারের মাধ্যমে।

মেকআপ ব্রাশের ব্র্যান্ড: মেকআপ ব্রাশের জনপ্রিয় কিছু ব্র্যান্ডের মধ্যে রয়েছে– ম্যাক, কাবুকি, হুডা বিউটি ও মানজি। মেকআপ ব্রাশ সেটের আইটেম: একটি ১০-৩২/৪৮ রকমের ব্রাশ মিলে একটি ব্রাশসেট হয়। এগুলোর মধ্যে ফাউডেশন ব্রাশ, ব্লাশ ব্রাশ, ব্রোঞ্জার ব্রাশ, হাইলাইট ব্রাশ, কনটোর ব্রাশ, আইশ্যাডো ব্রাশ, আইশ্যাডো ব্লেন্ডার ব্রাশ, মাসকারা ব্রাশ, লিপ ব্রাশ, আইলাইনার ব্রাশ, স্টিপলিং ব্রাশ, কনসিলার ব্রাশ ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য।

মেকআপ ব্রাশের ব্যবহার: মেকআপ করার আগে ত্বকে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করে নিতে হবে। তারপর মেকআপ সেট ব্যবহার করে ধাপে ধাপে মেকআপ করতে হবে।

১. যতটুকু প্রডাক্ট মুখে ব্যবহার করতে চান, সবটুকু একবারে ব্রাশে না নিয়ে বরং অল্প অল্প করে ব্রাশের মাধ্যমে ত্বকে ব্যবহার করতে হবে।

২. যে প্রডাক্টের জন্য যে ব্রাশ লাগবে, সেই ব্রাশ ব্যবহার করে মেকআপ করতে হবে। যেমন– ব্লাশনের জন্য ব্লাশন ব্রাশ ব্যবহার করতে হবে।

৩. আইলাইনার কিংবা লিপস্টিক সুন্দর করে দেওয়ার জন্য স্মল কনসিলার ব্রাশ ব্যবহার করে নিতে পারেন। কারণ, আইলাইনার এবং লিপস্টিক এই দুটো ব্যবহারের ক্ষেত্রে ছড়িয়ে ত্বকে লেগে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে।

মেকআপ ব্রাশের প্রাপ্তিস্থান: যারা ঢাকার মধ্যে থাকেন, মেকআপ ব্রাশ কিনতে চাইলে তারা যেতে পারেন ঢাকার নিউমার্কেট, চাঁদনী চক, এলিফ্যান্ট রোড, গাউছিয়া, শাঁখারীবাজার ও ইস্টার্ন মল্লিকার দোকানগুলোয়।

মেকআপ ব্রাশের পরিচর্যা: ত্বকের পরিচর্যার সঙ্গে সঙ্গে মেকআপ ব্রাশেরও পরিচর্যা নেওয়া জরুরি। এ ক্ষেত্রে কিছু নিয়ম আছে–

১. হালকা গরম পানিতে ব্রাশের ব্যবহার করা অংশটুকু ভালো করে ভিজিয়ে নিতে হবে।

২. এরপর ক্লিনজার কিংবা লিকুইড সাবান দিয়ে ধীরে ধীরে পানিতে ভিজিয়ে নেওয়া অংশটুকু ম্যাসাজ করতে হবে।

৩. এভাবে পরিষ্কার করার পর ব্রাশ সেটের পানি ঝরানোর পরিষ্কার শুকনো কাপ দিয়ে আলতো করে মুছে নিতে হবে।

৪. সর্বোপরি পরিষ্কার খোলা জায়গায়/বাতাসে রাখতে হবে পুরোপুরি পানি শুকানোর জন্য। এ ক্ষেত্রে একটি সাবধানতা রয়েছে, কখনও ভেজা ব্রাশ ব্যবহার করা যাবে না ত্বকে।

৫. বর্তমানে মেকআপ ব্রাশ ক্লিনার কিনতে পাওয়া যাচ্ছে বাজারে। চাইলে ক্লিনার ব্যবহার করে সহজেই মেকআপ সেট পরিষ্কার করা সম্ভব। 

আরও পড়ুন

×